fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

টানা ষষ্ঠদিন দেশে আক্রান্তের থেকে বেশি করোনাজয়ীর সংখ্যা!

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার বিরদ্ধে ভারতের লড়াইয়ের কেটে গিয়েছে বেশ কয়েকমাস।এই পরিস্থিতির মাঝেও কিছুটা হলেও দেশবাসীকে স্বস্তি জোগাচ্ছে,পরপর পাঁচদিন নতুন আক্রান্তের থেকে সুস্থতার সংখ্যা বেশি। যার ফলে সামান্য পরিমাণে হলেও সক্রিয় বা চিকিৎসাধীন করোনা রোগীর সংখ্যা কমছে। যদিও প্রত্যেকদিন ১০০০-এর বেশি মানুষের মৃত্যু হচ্ছে করোনায়। টানা পাঁচদিন দেশে নতুন আক্রান্তের সংখ্যাটা ৯০ হাজারের নিচে।

বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৮৬ হাজার ৫০৮ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে প্রায় ৩ হাজার বেশি। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৭ লক্ষ ৩২ হাজার ৫১৯ জন। গত সপ্তাহের তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা কমলেও দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যাটা আগের মতোই উদ্বেগজনক। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১২৯ জনের। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯১ হাজার ১৪৯ জন।

এদিকে দেশে আজ ফের সুস্থ হয়েছেন প্রায় ৮৮ হাজার মানুষ। এই নিয়ে টানা ছ’দিন নতুন আক্রান্তের থেকে বেশি হল করোনাজয়ীর সংখ্যা। ফলে এই মুহূর্তে দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪৬ লক্ষ ৭৪ হাজার ৯৮৮ জন। এদিকে গত কয়েকদিন সংক্রমণ কমার জন্য অনেকেই পরীক্ষার হারকে দাবি করছিলেন। তবে, আজ পরীক্ষার সংখ্যাও বেড়ে প্রায় ১২ লক্ষ হয়েছে।

আরও পড়ুন: টেস্টিং-ট্রেসিং-ট্রিটমেন্টে জোর, সাত রাজ্যকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান বলছে দেশের মধ্যে ৭টি রাজ্যে করোনার প্রকোপ সবচেয়ে বেশি। রাজ্যগুলি হল, মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, উত্তরপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, দিল্লি ও পঞ্জাব। দেশের মোট করোনা আক্রান্তের মধ্যে ৬৫ শতাংশ রোগীই এই ৭ রাজ্যের। করোনা মোকাবিলায় রাজ্যগুলি কী কী পদক্ষেপ করছে বা কেন্দ্রের তরফে রাজ্যগুলিকে আরও কী কী সহায়তা দেওয়া যায় এদিন তা নিয়েই ৭ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স মারফত বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করোনার সংক্রমণে দেশের ৬০ জেলাই এখন চিন্তার কারণ বলে বৈঠকে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই ৬০ জেলাই এই ৭ রাজ্যের অন্তর্গত। এদিনের বৈঠকে করোনা মোকাবিলা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের আরও বেশি সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ”সাত দিন ধরে সব জেলা বা ব্লক স্তরের মানুষের সঙ্গে কথা বলুন। করোনার সংক্রমণ এড়াতে তাঁরা কী কী পদক্ষেপ করছেন তা বোঝার চেষ্টা করুন।”

Related Articles

Back to top button
Close