fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

ফের ঊর্ধ্বমুখী গ্রাফ! দৈনিক সুস্থতার থেকে বেশি নতুন আক্রান্তের সংখ্যা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: গত একমাসে সংক্রমণের হার স্থিতিশীল পর্যায়ে আসেনি। দু’দিন আগেই দৈনিক সংক্রমণ ৭০ হাজারে নেমেছিল। আবার গতকাল থেকেই নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ছাড়িয়েছে। গত প্রায় সপ্তাহখানেক ধরে লাগাতার দেশে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ নিম্নমুখী হওয়ার ইঙ্গিত মিলছিল। প্রায় প্রতিদিনই হয় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কমছিল, না হয় সুস্থ রোগীর সংখ্যা নতুন আক্রান্তের থেকে হচ্ছিল অনেক বেশি। ছবিটা পুরোপুরি পালটে গেল বৃহস্পতিবার। একধাক্কায় অনেকটা বাড়ল নতুন আক্রান্তের সংখ্যা। দীর্ঘদিন বাদে ফের সুস্থ রোগীর থেকে বেশি মানুষকে দেখা গেল করোনায় আক্রান্ত হতে।

বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের  দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৮৬ হাজার ৮২১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে প্রায় ৬ হাজার বেশি। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩ লক্ষ ১২ হাজার ৫৮৫ জন। আক্রান্তের সংখ্যার পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যাও উদ্বেগজনক। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৮১ জনের। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯৮ হাজার ৬৭৮ জন।

এদিকে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮৫ হাজারের কিছু বেশি মানুষ। দীর্ঘদিন বাদে আক্রান্তের তুলনায় খানিকটা কম সুস্থ রোগীর সংখ্যা। এই মুহূর্তে দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ৫২ লক্ষ ৭৩ হাজার ২০২ জন। সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৯ লক্ষ ৪০ হাজার ৭০৫। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪ লক্ষ ২৩ হাজারের বেশি। ফলে মোট করোনা পরীক্ষা পেরিয়ে গেল ৭ কোটি ৫৬ লক্ষ।

আরও পড়ুন: জারি হল আনলক ৫.০ নির্দেশিকা…

মহারাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণে লাগাম টানা যাচ্ছে না। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজার ৩১৭ জন। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৩ লক্ষ ৮৪ হাজার ৪৪৬ জন। মারণ ভাইরাসের ছোবলে আরও প্রাণ হারিয়েছেন ৪৮১ জন। এ নিয়ে মরাঠাভূমে করোনার বলি হলেন ৩৬ হাজার ৬৬২ জন। তবে আশার আলো দেখাচ্ছে সুস্থতার সংখ্যা। একদিনে করোনাকে জয় করে বাড়ি ফিরেছেন ১৯ হাজার ১৬৩ জন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১০ লক্ষ ৮৮ হাজার ৩২২ জন। মারণ ভাইরাস রুখতে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে রাজ্যে লকডাউনের সময়সীমা আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছেন। ‘আনলক-৫.০’-তে রাজ্যের সিনেমা হল সহ দর্শনীয় স্থান খুলে দেওয়া হলেও ৫০ শতাংশের বেশি দর্শককে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে না বলে রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডক্টর হর্ষবর্ধন বলেছেন, কোভিড টেস্ট বেড়েছে দেশে। সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে মোট ১৮০০ ল্যাবরেটরিতে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে। দৈনিক ১৫ লাখ কোভিড টেস্ট করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের হিসেবে গতকালই দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪ লাখ ২৩ হাজার ৫২টি। এখনও পর্যন্ত দেশে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে সাড়ে সাত কোটির বেশি। আইসিএমআরের হিসেবে, ৭ কোটি ৫৬ লক্ষ ১৯ হাজার ৭৮১টি।

 

Related Articles

Back to top button
Close