fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

কাশ্মীর ইস্যুতে Global Times-এ পাক দূতের সম্পাদকীয়, বেজিংয়ে পাল্টা হুংকার ভারতীয় দূতাবাসের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: জম্মু কাশ্মীর পুরোপুরি ভাবে ভারতের অংশ। এই ব্যাপারে অন্য কোনও মত থাকতে পারে না। চিনকে অর্ধসত্য ও মিথ্যা বলেছে পাকিস্তান। চিনের সরকারি মুখপত্র গ্লোবাল টাইমসে প্রকাশিত এক প্রবন্ধের প্রেক্ষিতে এমনই কড়া প্রতিক্রিয়া চিনে ভারতীয় দূতাবাসের।

বৃহস্পতিবার ভারত জানিয়ে দিয়েছে জম্মু কাশ্মীর নিয়ে কথা বলার অধিকার পাকিস্তান বা চিনের নেই। তা একান্তই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। উল্লেখ্য গ্লোবাল টাইমসে চিনে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত মইন উল হকের লেখা এক প্রতিবেদনে জম্মু কাশ্মীরকে চিনের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

এরই প্রেক্ষিতে পাক রাষ্ট্রদূতকে একহাত নেন ভারতীয় রাষ্ট্রদূত। তিনি বলেন জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করার পর থেকেই কিছু দেশের চিন্তা বেড়েছে। তবে তাতে ভারতের কিছু যায় আসে না। জম্মু কাশ্মীর নিয়ে চিন ও পাকিস্তানের মাথাব্যথার কারণ নেই বলেও ভারতীয় রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন।

এদিন চিনের ভারতীয় দূতাবাস থেকে এক সরকারি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। সেখানেই কড়া ভাষায় পাক ষড়ষন্ত্রের তীব্র নিন্দা করা হয়েছে।নয়াদিল্লির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে গত এক বছরে অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে জম্মু কাশ্মীরে। কেন্দ্র জানিয়েছে গত ৭০ বছরের তুলনায় এক বছরে বেশি কাজ হয়েছে কাশ্মীরে।

৫০টি নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। ৫ লক্ষেরও বেশি কাশ্মীরি পড়ুয়া সরকারি সাহায্য ও স্কলারশিপ পেয়েছে। গড়ে উঠেছে হাসপাতাল, স্বাস্থ্য পরিষেবার উন্নতি ঘটানো হয়েছে। তৈরি হয়েছে নার্সিং কলেজ, মেডিক্যাল কলেজ। গত এক বছরের মধ্যে প্রায় ১৯ হাজার কাশ্মীরি যুবকের চাকরি হয়েছে। এবং আগামী দিনে আরও ৩০ হাজারের বেশি কাশ্মীরি যুবককে কর্মসংস্থান তৈরি করা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকে।

Related Articles

Back to top button
Close