fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মদ্যপ অবস্থায় পরিবারের উপরে নির্যাতন বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ মিছিল আদিবাসী সমাজের

শ্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: ত্রিশূল তীর-ধনুক নিয়ে মিছিল করলেন আদিবাসীরা। বসিরহাট থানার টাউন হল মাঠ থেকে ইছামতি ব্রিজ পেরিয়ে পুলিশ সুপারের অফিস পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার মিছিল করল আদিবাসী তপশিলি জাতি উন্নয়ন সমিতি। প্রত্যেকের হাতেই ছিল ত্রিশূল তীর-ধনুক ধামসা মাদল।

কয়েকশো আদিবাসী মহিলা-পুরুষেরা এই মিছিলে পা মেলান। তাদের দাবি আদিবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল হিঙ্গলগঞ্জ সন্দেশখালি, ধামাখালিতে বেআইনিভাবে মদের ভাটি চলছে, আদিবাসী সমাজের মানুষ মদ খেয়ে তাদের স্ত্রী সহ পরিবারের উপরে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন চালাচ্ছে, এর থেকে পরিত্রাণ চাই। বারবার পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়েও কোনও সুরাহা না হওয়ায় আজ আমরা এই মিছিল করতে বাধ্য হয়েছি।

আরও পড়ুন:হোয়াইট হাউসে ‘চিঠি বিষ’ কাণ্ডের শিরোনামে কানাডার সেইন্ট হিউবার্ট শহর, ধৃত মহিলা

আদিবাসী নেতা সুকুমার সর্দার বলেন, মূলত ত্রিশূল নিয়ে মিছিল করার মূল উদ্দেশ্য যাতে এলাকার সমাজবিরোধীরা আদিবাসী মহিলাদের উপর হামলা চালাতে না পারে, তাই তারা ত্রিশূল নিয়ে মিছিল করছেন। পাশাপাশি আদিবাসী সমাজের সব রকম সুযোগ-সুবিধা সংরক্ষণ দিতে হবে। এটা আমরা ২০১৮ সালে বসিরহাট পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার কে সবরী রাজকুমারকে, লিখিতভাবে জানিয়েছিলাম, তার কোনও সুরাহা হয়নি। তিনি অন্য জায়গায় ভর্তি হয়ে গেছেন। ওঁনার জায়গায় নতুন পুলিশ সুপার কংকর প্রসাদ বারুইয়ের কাছে আবার লিখিত দিচ্ছি। আদিবাসী সমাজ সুরক্ষিত ও নিরাপত্তা যাতে ঠিক মত পাওয়ায় এলাকায় মদের ভাটি উচ্ছেদ ও সমাজবিরোধীদের কার্যকলাপ যাতে না হয়। তার সম্পূর্ণ দায়িত্ব নিতে হবে। না হলে আগামিদিনে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে করব। তার পাশাপাশি তিনি বলেন, আদিবাসী সমাজের উপর আক্রমণ নয়। তার জন্য প্রতিহত করার জন্য আমাদের ত্রিশূল তীর-ধনুক নিয়ে আজ সোমবার দুপুর ১২ টায় মিছিল করলাম পাশাপাশি পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close