fbpx
কলকাতাবিনোদনহেডলাইন

তিতলি, সুদীপ, আর রায়া… ত্রয়ীর স্বপ্নে এগিয়ে চলেছে ইন্দো-ওয়েস্টার্ন ব্যান্ড GROOVES

বিপাশা চক্রবর্ত্তী, কলকাতা: তিতলি, সুদীপ, আর রায়া এই তিনজনের স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলেছে GROOVES Band। আর পাঁচটা ব্যান্ডের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ভারতীয় ও পাশ্চাত্ত ঘরানার সংমিশ্রণে সঙ্গীত জগতে নিজের ঘরানাকে তুলে ধরেছে ত্রয়ীর এই উদ্যোগ। ২০১৭ সালে তাদের যাত্রা শুরু করে GROOVES। এরপর সেই বছরেই ৩১ ডিসেম্বর তাদের প্রথম অনুষ্ঠান।

GROOVES Band র প্রথম মিউজিক ভিডিও “ছোটো চোখে সপনের পাড়ী” যেটি ছিল পথ শিশুদের নিয়ে। এবং দিতীয় “ONLINE SHOPPING” “INTERNET” এবং “MUSIC MAKER” নামক বাকি দুটো মিউজিক ভিডিও বেশ কিছুদিন পরেই বেরোবে। কিছুদিন আগেই GROOVES র তৈরি মহামারী করোনা নিয়ে গানটি একটি বৈদ্যুতিন খবরের চ্যানেল সহ আরও বেশ কিছু খবর চ্যানেলে ভাইরাল হয়।

ব্যান্ডে অন্যতম সুরের যাদুকর হিসেবে রয়েছেন সুদীপ ঘোষ, তিতলি ও রায়া চ্যাটার্জি।  তিতলি ও রায়া দুই বোন।  ব্যান্ডে কি-বোর্ড বাজিয়ে থাকেন সুদীপ। মাত্র ১৪ বছর বয়সে সুদীপবাবু প্রথম কি -বোর্ড বাজিয়েছিলেন অল ইন্ডিয়া রেডিওতে। কলকাতার বিখ্যাত কিছু মিউজিশিয়ানের মধ্য যিনি স্টাফ নোটেশন ব্যবহার করেন। তিনি কি-বোর্ডের পাশাপাশি পিয়ানো ও মেলোডিকাও বাজান। একাধারে মাউথ অর্গ্যানও বাজান তিনি। জীবনে চলার পথে গুরু হিসেবে পেয়েছিলেন ভি বালসারাকে।

তিতলির কথায়, ‘তারা যে বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে সঙ্গীত পরিবেশন করে থাকেন তার নাম keyter Instrument। বাংলায় তিনিই প্রথম মহিলা শিল্পী যিনি কিটার বাজিয়ে গান করেন। তিতলির কথায়, এই Keyter শেখা সুদীপদার কাছেই।

তিতলি চ্যার্টার্জি জানান, ‘মাত্র চার বছর বয়স থেকে মামার কোলে বোসে গান শেখা শুরু। ২০১০ সালে ষোলো বছর বয়সে প্রথম playback করেন Shaan র সঙ্গে বড়ো ছবি ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’র জন্য। এবার ২০১৫ সালে ফের ‘মায়ামৃদঙ্গ’ ও ২০১৯ এ তৃতীয় ছবি ‘ভালোবাসার গল্প’তে সঙ্গীতের দক্ষতার পরিচয় রাখেন তিনি। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু TV Reality Show তে গান করেছেন ’।

শিল্পী রায়া চ্যার্টার্জির কথায়, ‘তিনি ব্যান্ডে Sample Pad বাজিয়ে গান করেন। অনেক ছোট থেকে গান ও নাচ দুটিই ভালোবেসে শুরু করেছেন রায়া।  বেশ কিছু T.V Reality Show তে রায়া নাচ ও গানের অনুষ্ঠানে অংশও নিয়েছেন। রায়া এবং তিতলি  দুজনেরই গানের গুরু শুভদীপ মুখার্জি’।

বাংলা লোকগীতি, হিন্দি সঙ্গীত, পাশ্চাত্ত গান, আধুনিক বাংলা গান, বলিউড গান, এছাড়াও বিখ্যাত ব্যান্ডের গান করে থাকেন এই তিন শিল্পী।

তিতলির কথায় , লকডাউন হয়ে যাওয়ার পর পাবলিক শোগুলি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় GROOVES র Online Concert শুরু হয়। গত ২৬ জুলাই বাংলাদেশের একটি বিখ্যাত পেজ থেকে GROOVESকে আমন্ত্রণ জানায় তাদের Online Concert- এর জন্য। GROOVES (Torento, Canada)র একটি বাংলা টিভি চ্যানেল” দেশে- বিদেশে” তে গান গাওয়ার জন্য আমন্ত্রণ পেয়েছিল গত ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০। গত ২৭ সেপ্টেম্বরও আমন্ত্রণ জানানো হয় California Tv Channel থেকে শুভাননদ পূরীর আহবানে।

GROOVES Band-এর স্বপ্ন আগামীদিনে দর্শকদের সামনে আরও সুন্দর গান তুলে ধরা। আপাতত সেই প্রচেষ্টায় করে যাচ্ছে ত্রয়ী।

Related Articles

Back to top button
Close