fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

IISCO-য় দূর্ঘটনা! বায়ো প্রজেক্টে অ্যাসিড আক্রান্ত দুই, শ্রমিক বিক্ষোভে তপ্ত কারখানা

শুভেন্দু বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল: কাজ করার সময় শরীরে অ্যাসিড ছিটকে শরীরে পড়ায় জখম দুই শ্রমিক। তাদের মধ্যে একজনের শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে শনিবার সকালে দূর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোলের বার্ণপুরের আইএসপি বা ইস্কো কারখানায়। কারখানা সূত্রে জানা যায়, ঘটনাটি ঘটেছে কারখানার কোকওভেন ১১ নংয়ের বায়ো প্রজেক্টের মেকানিকাল বিভাগে। দুই শ্রমিকের নাম হলো হিরালাল যাদব ও শম্ভু সিং।

ইস্কো কারখানা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে কারখানার কোকওভেন ১১ নংয়ের বায়ো প্রজেক্টের মেকানিকাল বিভাগে কাজ করছিলেন দুই শ্রমিক হলেন হিরালাল যাদব ও শম্ভু সিং। সেই বিভাগের মেকানিকাল বিভাগের অ্যাসিড যাওয়ার পাইপ লাইনে সেই সময় ডিউটি করছিলেন প্রভাস কুম্ভকার নামে অন্য এক কর্মী। অভিযোগ, সেই সময় লাইনের যান্ত্রিক গলোযোগ দেখা যায়। আধিকারিকদের উপস্থিতিতে সেই সময় লাইন মেরামত করতে গেলে, পাইপ লাইনের অন্যদিকের ভাল্ব খুলে গিয়ে অ্যাসিড জোরে ছিটকে গিয়ে হিরালাল যাদব ও শম্ভু সিংকে শরীরে লাগে। শম্ভুর শরীরের অন্য অংশের পাশাপাশি, চোখে অ্যাসিড ছিটকে যায়।

এদিকে এই ঘটনার পরে বেশ কিছুক্ষণ জন্য কাজ বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ দেখান ঐ বিভাগে কর্মরত অন্যান্য শ্রমিকেরা । তারা দাবি করেন যে, বিভাগে কর্মরত আধিকারিকদের গাফিলতির জন্য এই ঘটনা ঘটেছে। তাই তাদেরকে অন্য বিভাগে বদলি করতে হবে। পরে কতৃপক্ষের আশ্বাসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। এই প্রসঙ্গে আইএনটিইউসি নেতা ও সিটু নেতা শুভাশিষ বসু বলেন, ”কারখানা কতৃপক্ষ দূর্ঘটনা আটকাতে ঠিক মতো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। আধিকারিকরাও ঠিক মতো কাজ করতে না পারায় বারবার দূর্ঘটনা ঘটছে। কারখানা কতৃপক্ষকে দ্রুত দূর্ঘটনা কমাতে লিখিতভাবে আবেদন করা হবে”। ঘটনার জেরে তদন্তের আশ্বাস মিলেছে কারখানা কতৃপক্ষের পক্ষ থেকে।

Related Articles

Back to top button
Close