fbpx
কলকাতাহেডলাইন

‘শিক্ষা বাঁচাও আন্দোলনের’ পটভূমিকা মজবুত করতে উদ্যোগি হল শিক্ষা সংস্কৃতি উত্থান ন্যাস

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ‘যােগ্যতার বিচার না করে শুধুই দলীয় রাজনীতির পরিচয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়ােগের অস্বচ্ছতা বাংলার শিক্ষা জগৎকে কলুষিত করছে।’ চাঞ্চল্যকর আভিযোগ করলেন শিক্ষা সংস্কৃতি উত্থান ন্যাস সংগঠনের কলকাতা জেলা সংযোজক দীপন মজুমদার।

সোমবার এক সাক্ষাৎকারে রাজ্যের বর্তমান শাসক দলের শিক্ষানীতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন দীপন। তিনি বলেন, ‘বিগত প্রায় ৪০ বছর ধরে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা ব্যবস্থার চূড়ান্ত অরাজকতা আজ এক লাগাম ছাড়া মাত্রাতে পৌঁছেছে। যোগ্যতা নয় দলীয় রাজনীতির বিচারে নিয়োগ চলছে। বাম আমল থেকে শুরু তৃণমূল আমলেও তা বিদ্যমান।’

তাই পশ্চিমবঙ্গের ‘শিক্ষা বাঁচাও আন্দোলনের’ পটভূমিকাকে আরও মজবুত করতে এবার উদ্যোগি হল শিক্ষা সংস্কৃতি উত্থান ন্যাস। এ জন্য রবিবার ন্যাসের একটি প্রান্তীয় স্তরের বৈঠক অনুষ্ঠিত হযে গুগল মিট এর মাধ্যমে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা সংস্কৃতি উথান ন্যাসের পশ্চিমবঙ্গ প্রান্তের সহ – সংযােজক অরিন্দম মজুমদার , প্রান্ত পরিবেশ প্রকল্পের সংযােজক সুদীপ মিত্র , প্রান্তশােধ প্রকল্প সংযােজক শিবশঙ্কর দাস এবং কলকাতার সংযােজক দীপন মজুমদার । উক্ত বৈঠকে অরিন্দম বাবু এবং দীপন বাবু পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা ব্যবস্থার চরিত্র পুনরুদ্ধারের একটি বিস্তারিত মানচিত্র সবার সামনে পেশ করেন। এ ছাড়াও এদিন বৈঠকে বিশ্ব ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগােলের বরিষ্ঠ অধ্যাপক বিভাষ চন্দ্র ঝা কে প্রান্তের চরিত্র নির্মাণ এবং ব্যক্তিত্ব বিকাশ প্রকল্পের সংযােজকের দায়িত্ব দেওয়া হয় , বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক গৌতম চন্দ্র কে শিক্ষক শিক্ষার প্রান্ত সংযােজকের দায়িত্ব প্রদান করা হয় , ভারত সরকারের পারমাণবিক শক্তি বিভাগের বৈজ্ঞানিক ডাঃ নিশীথ কুমার দাস কে প্রদ্যোগিকী শিক্ষার প্রান্ত সংযােজকের দায়িত্ব দেওয়া হয় , শিক্ষাক্ষেত্রে স্বায়ত্তশাসন প্রকল্পের প্রান্ত সংযােজকের দায়িত্ব আই.আই.ই.এস.টি শিবপুরের মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সুদীপ্ত মুখােপাধ্যায়কে দেওয়া হয় এবং ইতিহাস সংকলন প্রকল্পের প্রান্ত সংযােজকের দায়িত্ব সিধাে কানাে বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের প্রাক্তন বিভাগধ্যাক্ষ ডাঃ গৌতম মুখােপাধ্যায় কে দেওয়া হয় ।

বৈঠকের শেষে শিক্ষা সংস্কৃতি উত্থান ন্যাসের বৈঠকে উপস্থিত সকল কার্যকর্তারা ঐক্যবদ্ধ ভাবে পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষা ব্যবস্থার পুনর্গঠনের প্রতিজ্ঞা নেয়। ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের আগে পশ্চিমবঙ্গে একটি জাতীয়তাবাদী শিক্ষক সংগঠনের এমন বিপুল বিস্তার নিশ্চিত ভাবে চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াবে শাসক দল এবং বামপন্থী শিক্ষক সংগঠন গুলাের জন্য ।

এ প্রসঙ্গে দীপন আরও বলেন, ‘বিগত কয়েক বছরে শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষাবিদদের বহুবার অপমানিত হতে হযেছে। সাম্প্রতিক কালে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালযের সহ উপাচার্য্য নিযােগের ক্ষেত্রে সেই বিশ্ববিদ্যালযেরই বরিষ্ঠ অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে প্রকাশ্যে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর করা কটুক্তি এখনাে রাজ্যের মানুষ ভােলেনি৷ এমতবস্থায় রাষ্ট্রীয় স্বয়মসেবক সংঘের শাখা সংগঠন শিক্ষা সংস্কৃতি উত্থান ন্যাসের ব্যাপক সাংগঠনিক বিস্তার নজরে এসেছে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষক মহলের।’

Related Articles

Back to top button
Close