fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সবুজায়নের লক্ষ্যে স্বাধীনতা দিবসের দিন ১০ হাজারের বেশি চারা গাছ রোপনের উদ্যোগ দিনহাটায় 

নিজস্ব সংবাদদাতা, দিনহাটা: সবুজায়নের লক্ষ্যে স্বাধীনতা দিবসের দিন ১০ হাজারের বেশি চারা গাছ রোপনের উদ্যোগ নিল বড়শাকদল গ্রাম পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ। দিনহাটা দুই ব্লকের সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন রাস্তার দুই ধারে এই চারাগাছ রোপন করা হবে বলে জানা গেছে। এর জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১২ লক্ষ টাকা।গ্রাম পঞ্চায়েত করতিপক্ষ্যের এই উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানান অনেকেই।

গ্রাম পঞ্চায়েত সূত্রে জানা গেছে রাজ্য সরকার সবুজায়নের দিকে বিশেষ জোর দিয়েছে। সেদিকে লক্ষ্য রেখে গ্রাম পঞ্চায়েতের চারটি নতুন রাস্তার দুই ধারা ও অন্যান্য রাস্তার ধারে এই চারা গাছ লাগানোর সিদ্ধান্ত হয়। রাস্তার দুই ধারে নিম গাছ, কাঁঠাল গাছ সহ বিভিন্ন রকম গাছ লাগানো হবে। স্বাধীনতা দিবসের সকালে এই কাজের সূচনা করবেন গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান তাপস দাস। উপস্থিত থাকবেন উপ প্রধান সবপ্না বর্মণ থেকে শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দারা।

এলাকাকে সবুজায়নের লক্ষ্যে গ্রাম পঞ্চায়েতের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান পরিবেশ প্রেমীরা। পরিবেশ প্রেমী সংগঠন আমার দিনহাটা ওয়েলফেয়ার সোসাইটি সম্পাদক সঞ্জিত কর্মকার , দিনহাটা জন জাগরণ মঞ্চের সম্পাদক হিটলার দাস প্রমুখ বলেন এভাবে সবাই এগিয়ে এলে একদিকে যেমন সবুজায়ন ঘটবে তেমনি উষ্ণায়নের হাত থেকে মানুষকে রক্ষা করা অনেকটাই সম্ভব হবে।গাছ পাগল বলে পরিচিত যুবক উমাশঙ্কর সরকার বলেন এভাবে সবাই এগিয়ে এলে সবুজায়নের পাশাপাশি রক্ষা হবে বসুন্ধরা। বড়শাকদল গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান তাপস দাস জানান গ্রামের উন্নয়নকে এগিয়ে নিয়ে যেতে নানাভাবে চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি সবুজায়নের লক্ষ্য গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন এলাকায় স্বাধীনতা দিবসের সকালে ১০ হাজার চারা গাছ রোপণের কাজ শুরু হবে। শুধু বৃক্ষরোপণ নয়, সেগুলিকে রক্ষা করার জন্য সব ধরনের চেষ্টা করা হবে।রাজ্য সরকারের নানা প্রকল্প মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া ছাড়াও উন্নয়নের পাশাপাশি গোটা এলাকা সবুজায়নের মধ্য দিয়ে সাজিয়ে তুলতে তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রথম দফায় ১০ হাজার চারা গাছ রোপণ সম্পন্ন হলেও পরবর্তীতে আবারো বাকি এলাকাগুলিতে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি নেওয়া হবে বলেও প্রধান জানান

Related Articles

Back to top button
Close