fbpx
দেশপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আন্তর্জাতিক উড়ান বন্ধ, পরিবারের সঙ্গে নিয়মিত কথা হচ্ছে, দেশে ফিরতে উদগ্রীব তবলীগ জামাতের কর্মীরা

মোকতার হোসেন মন্ডল: আন্তর্জাতিক উড়ান বন্ধ তাই পরিবারের সঙ্গে নিয়মিত কথা হলেও দেশে ফিরতে পারছেন না রাজারহাট নিউটাউনের মদিনাতুল হুজ্জাজে থাকা তবলীগ জামাতের বিদেশি কর্মীরা। তারা নিজ দেশে ফেরার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন বলে জানা গেছে।
লকডাউনের পরেই দিল্লির নিজামুদ্দিন নিয়ে হৈচৈ পড়ে যায়। আর তার পরেই বিভিন্ন রাজ্য সরকার তবলীগ কর্মীদের কোয়ারেন্টাইনে রাখে।

পশ্চিমবঙ্গের হজ হাউজে ৩০৩ জনকে রাখা হয়েছিল। কিন্তু এদের কোয়ারেন্টাইন শেষে ছেড়ে দেওয়া হলেও বিদেশি কর্মীরা এখনও সেখানে রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে লকডাউনে আন্তর্জাতিক উড়ান বন্ধ থাকায় তারা ঘরে ফিরতে পারছেন না বলে খবর।

দীর্ঘদিন এক জায়গায় থাকার ফলে যে একঘেয়েমি জীবন এসেছে তাতে কিছুটা আনন্দ নিয়ে আসে ঈদ। ওইদিন তারা খুব আনন্দ করেছে। রাজ্য হজ কমিটি সব রকম আয়োজন করেছিল।

কিন্তু রাজারহাটের মদিনাতুল হুজ্জাজ হজ হাউসের ১ কেরালিয়ান-সহ ১০৮ জন বিদেশি নিয়মিত পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন এবং প্রয়োজনে টাকাও চাইছেন। কেননা অনেক সময় হজ হাউজের খাবারের বাইরেও দোকান থেকে পছন্দের খাবার আনানো হচ্ছে।

জানা গেছে ওই বিদেশি তবলীগ কর্মীরা ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, মায়ানমার, বাংলাদেশ থেকে এসেছেন।  কেরলের এক বাসিন্দাও  এখানে আছেন। একমাস রোজাও রেখেছেন।
কিন্তু এতটা দিন পরেও তারা এখানে কেন? রাজ্য হজ কমিটির চেয়ারম্যান নাদিমুল হকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘বিষয়টি স্বাস্থ্য দফতর দেখছে। এর বেশি বলতে পারবো না।’

কিন্তু কোয়ারেন্টাইনের নির্দিষ্ট সময় বহু আগেই শেষ হয়েছে। তাহলে কী জন্য রাখা হয়েছে? জবাব মেলেনি।

তবে হজ কমিটির কার্যনির্বাহী আধিকারিক মহম্মদ নকি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, “ঈদে অতিথিদের কোনও সমস্যা হয়নি। আমাদের তরফে যতটা সাহায্য প্রয়োজন করা হয়েছে।”

জানা গেছে, এই সেন্টারে যে বিদেশিরা রয়েছেন তাদের কোয়ারেন্টাইন পর্ব শেষ হলেও কূটনৈতিক কারণে এবং নিয়মিত বিমান চলাচল শুরু না হওয়ায় এখানে আটকে রয়েছেন। তবে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল শুরু হলেই তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরানো হবে বলে জানা গেছে।

Related Articles

Back to top button
Close