fbpx
কলকাতাহেডলাইন

করোনার কাঁটায় আটকে ইস্কনের রথ, তবে শহরে ছুটবে ‘মানবরথ’

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  রথযাত্রা বাঙালিদের কাছে এক বিশাল বড় উত্‍সব। তবে এই বছর করোনার জেরে সমস্ত উত্‍সবই ফিকে পড়ে যাচ্ছে। বাদ যায়নি রথযাত্রাও। সব কিছু ঠিক থাকলে এবার কলকাতার রাজপথে ইস্কনের রথ ছুঁয়ে ফেলতো ৩৯তম বছরের রথযাত্রা। কিন্তু সে আর হল না। মারণ ভাইরাস নভেল করোনার হানাদারিতে আজ কলকাতার পথে নামছে না ইস্কনের রথ। তবে এই শহরের পথে আজ থেকেই দৌড় শুরু করছে অন্য এক রথ। সেই রথের সারথি রাজ্যের মন্ত্রী জাভেদ আহমেদ খান ও তার পুত্র ফাইয়াজ খান। দুইজনের উদ্যোগে এইদিন থেকে শুরু হচ্ছে এমন এক রথযাত্রা যা বিনামূল্যে বিপর্যস্ত মানুষকে পৌঁছে দেবে তাঁর গন্তব্যে। নাম তাঁর ‘মানবরথ’।  অন্যদিকে এদিন থেকেই কলকাতার পথে দশদিনের জন্য দৌড় শুরু করবে মানবরথ। আদতে যা এক বিশেষ অটো পরিষেবা কলকাতার মানুষদের জন্য। আগামী দশ দিন ধরে প্রায় ৬ হাজার মানুষকে বিনামূল্যে তাঁদের গন্তব্যে পৌঁছে দেবে এই মানবরথ।

আরও পড়ুন: তথ্য গোপন করে মামলা… আইনজীবীর জরিমানার নির্দেশ দিল হাইকোর্ট

আগেই ইস্কনের তরফে জানানো হয়েছিল এবছর কলকাতার রাজপথে বার হবে না রথ। করোনাজনিত পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই এবছর তাঁরা রথযাত্রার আয়োজন করলেও তা সীমাবদ্ধ রাখছেন মন্দির চত্বরের মধ্যেই। এমনকি অনান্য বছরের মতো এবারে তাঁরা অতিথি হিসাবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানালেও আর কোনও তারকাকে আমন্ত্রণ জানাননি রথযাত্রার উদ্বোধনের জন্য। এদিন কলকাতার মিন্টো পার্ক লাগোয়া অ্যালবার্ট রোডে ইস্কনের যে মন্দির রয়েছে সেখানেই একটি ছোট রথে তোলা হবে জগন্নাথ, বলরাম ও শুভদ্রার মূর্তিকে। তারপর মন্দিরের মধ্যেই একটি স্থানে তাঁদের নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানেই তাঁরা আগামী নয়দিন অবস্থান করবেন ও উল্টোরথের দিন আবারও একইভাবে মূল গর্ভগৃহে ফিরে আসবেন। এই নয়দিন যাবৎ মন্দিরে অবশ্য নির্দিষ্ট বিধি মেনে আসতে পারবেন ভক্তরা। থাকছে নানা অনুষ্ঠানেরও আয়োজন।

 

Related Articles

Back to top button
Close