fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আরব লীগ এবং ওআইসি সহ ইসলামী দেশগুলি নবী (স:) এর অবমাননা নিয়ে ভাবুক, আহ্বান সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরীর

মোকতার হোসেন মন্ডল: আরব লীগ এবং ওআইসি সহ ইসলামী দেশগুলি নবী (স:) এর অবমাননা নিয়ে ভাবুক, এমনটাই আহ্বান জানালেন জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের রাজ্য সভাপতি মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করে এক বিবৃতিতে জমিয়তের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, “ফ্রান্সের রাষ্ট্রপ্রধান ইমানুয়েল ম্যাক্রো ইসলামবিরোধী যে আগ্রাসন দেখিয়েছেন, আমরা তাঁর তীব্রভাবে প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এই আগ্রাসনে পৃথিবীর সভ্য সমাজ স্তম্ভিত। নবীজির (সঃ) যে অশোভন ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করেছে তাকে সমর্থন দিয়ে ইমানুয়েল ম্যাক্রো ক্ষমতার বলে বলীয়ান হয়ে বাক স্বাধীনতার জিগির তুলে বিচ্ছিন্নতা, সাম্প্রদায়িকতা ও হানাহানির পথ প্রশস্ত করেছেন; খোদ ফ্রান্সেও তিনি নিন্দিত হয়েছেন। সূর্য-চন্দ্রের দিকে কেউ থুতু ফেললে তার নিজেরই চেহারা মলিন হয়। ফ্রান্সের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদে বলেছেন, ইসলাম সন্ত্রাসী ধর্ম নয়। হলোকস্টের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা যদি অপরাধ হয়, তাহলে পৃথিবীর এক চতুর্থাংশ মানুষের ধর্ম ও প্রিয় নবী (সঃ) – এর বিরুদ্ধে কুৎসা রটানো নিরপরাধ কি ভাবে হয়? আর কেনই বা এর শাস্তি হবে না?”

আরও পড়ুন- একুশের আগেই লাগু সিএএ

সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী জানান, মত প্রকাশের অগ্রাধিকারের নামে পৃথিবীকে অশান্ত করা চলতে পারে না। ফ্রান্সে একটি মসজিদ বন্ধ করা হয়েছে। পঞ্চাশটির বেশি মসজিদে নজরদারি চালানো হচ্ছে। ম্যাক্রো সাহেবের জেনে রাখা দরকার ,মসজিদ সন্ত্রাস শেখায় না; মসজিদ সম্প্রীতি-ভালোবাসা, অনুতাপ-পরিতাপ, ধৈর্য্য- সহনশীলতা, নামাজ, ঈমান ও পরকালের শিক্ষা দেয়। ওই পবিত্রস্থানে দোয়া কবুল হয়।

ইমানুয়েল ম্যাক্রোর সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি সহ যারা আওয়াজ তুলেছেন আমরা তাদেরকে ঘৃণার চোখে দেখি এবং শার্লি এবদোর ব্যঙ্গচিত্র এবং তথাকথিত বাকস্বাধীনতার বিরুদ্ধে যারা সরব হয়েছেন তাদের আমরা অকুন্ঠ সর্মথন ও সাধুবাদ জানাই। একজন শিক্ষক ও আরও তিনজন নিরীহ মানুষের হত্যাকান্ড আমরা সমর্থন করি না। অন্য ধর্মের খ্যাতিসম্পন্ন মনসীদের প্রতি বিদ্বেষ ও উপহাস ইসলাম ধর্ম শেখায়নি।

মুসলিম উম্মাহর প্রতি আমাদের দাবি, নবীজির ( সঃ) অবমাননার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ কর্মসূচি করতে চাইলে শান্তিপূর্ণভাবে, সুশৃঙ্খলভাবে প্রতিবাদ হোক; শত্রুরা যাতে কোন সুযোগ না পায় সে দিকে নজর রাখা প্রয়োজন। আরব লীগ ওআইসিসহ ইসলামী দেশ সমূহের আত্মপর্যালোচনা করার সময় এসেছে নবীজী (সঃ) কলঙ্কিত করার অপচেষ্টার বিষয়ে কতটা কী করতে পেরেছে। এই প্রেসকনফারেন্সের মধ্যে দিয়ে আমরা কঠোরভাবে দাবি জানাচ্ছি, ইমানুয়েল ম্যাক্রো তাঁর অবস্থান থেকে সরে  আসুক। ইসলাম ধর্মকে কালিমালিপ্ত করার অপচেষ্টা বন্ধ করুক।”

 

Related Articles

Back to top button
Close