fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাজ্য সরকার নয়,বাস ভাড়া বাড়িয়ে দিল ইউনিয়নই

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আনলক-১ পর্বে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে পথে কলকাতা। রাস্তায় সরকারি বাস-অটো, ট্যাক্সি নামলেও, গড়ায়নি বেসরকারি বাসের চাকা। ভাড়া না বাড়লে শুরু হবে না বেসরকারি বাস পরিষেবা। পরিবহণ দফতরকে এমনই হুঁশিয়ারি দিয়েছিল বেসরকারি বাস সংগঠনগুলি। কিন্তু পরিবহন মন্ত্রীর আশ্বাসে বেসরকারি বাস পরিষেবা শুরু হলেও অবাক কান্ড ঘটল ২৩০ নম্বর রুটের বাসে। পরিবহণ দফতর বা রাজ্য সরকার নয়,বাস ভাড়া বাড়িয়ে দিল ইউনিয়নই। এখন বাসে  উঠলেই যাত্রীদের দিতে হবে ১০ টাকা। মূলত ইউনিয়নের তরফে দাবী,কোভিড এর জন্য এই ভাড়া বাড়ানো হয়েছে বলে । শুধু তাই নয় আগের ভাড়া কী ছিল এবং বর্তমানে কোভিদের জন্য কী ভাড়া বাড়ানো হল তার প্রত্যেকটি বাসে ইউনিয়নের তরফে চার্ট আকারেও লাগানো হয়েছে ।

আরও পড়ুন: পরিযায়ীদের পিএম কেয়ার ফান্ড থেকে দেওয়া হোক ১০ হাজার টাকা, আবেদন মমতার

৭ টাকার ভাড়া হয়েছে ১০ টাকা। ৯ টাকার ভাড়া করা হয়েছে ১৫ টাকা। ১০ ও ১১ টাকার ভাড়া করা হয়েছে ২০ টাকা। ভাড়া বাড়ানোর কারণ হিসেবে ইউনিয়ন অবশ্য জানাচ্ছে ” সরকার আমাদের দাবি শোনেনি। যত সংখ্যক আসন তত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে বাস চললে লোকসান হবে। তেলের টাকা পর্যন্ত উঠবে না। তাই ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। তবে যাত্রীদের বেশি ভাড়া দেওয়ার জন্য জবরদস্তি করা হচ্ছে না।” বুধবার সকাল থেকেই এই রুটের বাস পরিষেবা শুরু হওয়াতে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন অফিস যাত্রীরা। তাই ভাড়া বাড়ল খুশি মনেই বেশি ভাড়া দিচ্ছেন যাত্রীরা। তবে বেসরকারি বাস কর্তৃপক্ষ ইউনিয়ন এই ভাবে চার্ট লাগাতে পারে নাকি তা নিয়ে অবশ্য প্রশ্ন থাকছেই।

বুধবার থেকেই শুরু হয়েছে বেসরকারি বাস পরিষেবা ২৩০ নম্বর রুটের। মূলত ডানলপের সঙ্গে কলকাতার যোগাযোগের জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রুট বিশেষত বিটি রোড সংলগ্ন বাসিন্দাদের কাছে। আর এবার সেই রুটেই ভাড়া বাড়ালো খোদ ইউনিয়নই।

Related Articles

Back to top button
Close