fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শাসক-বিরোধী সাংসদকে নোটিশ, অথচ শাসকের প্রশাসককে ছাড়! এ কেমন প্রশাসন?

নিজস্ব প্রতিনিধি, নদিয়া: শাসক-বিরোধী সাংসদ জগন্নাথ সরকারকে কোয়ারেন্টাইন এর নোটিশ অথচ শাসকের প্রশাসক বিমান সাহাকে নয় কেন? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলে।

 

 

প্রসঙ্গত গত সোমবার নদিয়ার নবদ্বীপ ব্লকের চরব্রহ্মনগরে পরিযায়ী শ্রমিকদের অস্থায়ী কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিদর্শনে গিয়েছিলেন রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ জগন্নাথ সরকার। জগন্নাথ বাবু চলে আসার কিছু সময় বাদে একই জায়গায় গিয়েছিলেন নবদ্বীপ পৌরসভার প্রাক্তন পৌরপতি তথা বর্তমান প্রশাসক বিমান কৃষ্ণ সাহা। মঙ্গলবার কাকভোরে নদীয়াজেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক এর দপ্তর থেকে সাংসদ জগন্নাথ সরকারের কাছে নোটিশ যায় ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকার। যদিও সেই নোটিশ গ্রহণ করেননি বলেই দাবি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের। একই জায়গায় একইভাবে সশরীরে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিদর্শনে যান নবদ্বীপ পৌরসভার বর্তমান প্রশাসক বিমান কৃষ্ণ সাহা। জগন্নাথ বাবু হোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকার নোটিশ পেলেও বিমান বাবুর ক্ষেত্রে বিষয়টি একেবারেই অন্যরকম তিনি কিন্তু কোনো নোটিশ পাননি।

 

 

প্রশ্ন উঠেছে এখানে তাহলে কি, শাসক-বিরোধী সাংসদ বলেই তাকে আটকানোর জন্য ১৪ দিনের গৃহবন্দী থাকার নোটিশ?আর পৌরসভার বর্তমান প্রশাসক বিমান কৃষ্ণ সাহা শাসকের প্রশাসক বলে তাকে ছাড় দেওয়া হল? এ নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। এ বিষয়ে নদিয়া উত্তর কেন্দ্রের বিজেপির সহ-সভাপতি গৌতম পাল বলেন, সম্পূর্ণ অনৈতিক অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে সাংসদকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস বুঝতে পেরেছে তাদের পায়ের তলার মাটি সরে গেছে নবদ্বীপে তাই সাংসদকে ঘরে আটকে বিজেপিকে আটকানোর চেষ্টা করছে। কেননা তৃণমূল কংগ্রেস বিজেপি কে ভয় পাচ্ছে। পৌরসভার প্রাক্তন পৌরপতি কে নোটিশ না পাঠিয়ে প্রশাসনের ওপর অবৈধ হস্তক্ষেপ করে সাংসদ জগন্নাথ সরকারকে গৃহবন্দী থাকার নোটিশ পাঠিয়েছে। মানুষ এর জবাব দেওয়ার অপেক্ষায়।

 

 

 

অন্যদিকে এ বিষয়ে নবদ্দীপ পৌরসভার প্রাক্তন পৌর প্রতি তথা বর্তমান প্রশাসক বিমান কৃষ্ণ সাহা বলেন, সেখানে প্রশাসন এবং পুলিশের লোকজন উপস্থিত ছিল তারা মনে করেছে যে একজন সাংসদ হয়ে সম্পূর্ণ নিয়মবর্হিভূতভাবে কোয়ারেন্টাইন এ থাকা সদ্য ভিন রাজ্য থেকে আসা শ্রমিকদের সংস্পর্শে মিশে গিয়েছিলেন। কিন্তু বিমান বাবু জানান তিনি পর্যবেক্ষণে গেছিলেন ঠিকই তবে সামাজিক দূরত্ব রেখেই পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে কথাবার্তা বলেন বলেই দাবি করেছেন। তবে এমন ঘটনা নিয়ে নদিয়া জেলার সাধারণ মানুষ এই বিষয়টিকে ভালোভাবে মেনে নেয়নি। তা প্রকাশ পাচ্ছে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বাজার হাট সর্বত্রই একই সমালোচনা। শাসক হলে সাত খুন মাপ অথচ শাসক-বিরোধী হলে তার ওপর বিভিন্ন অভিযোগ এমনকি প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে তার ওপর হস্তক্ষেপ করা।

Related Articles

Back to top button
Close