fbpx
কলকাতাহেডলাইন

আজ জয়েন্ট এন্ট্রান্স! পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি লাঘবে রাস্তায় অতিরিক্ত বাস-অটো নির্দেশ নবান্নের, খোলা কন্ট্রোলরুম

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আজ জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা। আতঙ্কের পরিবেশের মধ্যেই শুরু হয়ে গেল সর্বভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা পরীক্ষা (JEE Main)। যাবতীয় সুরক্ষাবিধি মেনেই পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছিল কেন্দ্র। দেশ জুড়ে বিভিন্ন পরীক্ষাকেন্দ্র এই ব্যাপারে বিশেষ পদক্ষেপও করেছে। সকাল থেকেই পরীক্ষার্থীরা ভিড় করছেন দেশের নানা কেন্দ্রে। থার্মাল গানে তাদের তাপমাত্রা মেপে, হ্যান্ড স্যানেটাইজার দিয়ে তবে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকানোর প্রক্রিয়া চলেছে। কড়া নজর রাখা হচ্ছে যাতে করোনা সামাজিক দূরত্ববিধি লঙ্ঘন না হয়। বিভিন্ন রাজ্যের আপত্তি সত্ত্বেও মঙ্গলবার জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা আয়োজিত হল । যদিও রাজ্য সরকার করোনা আবহে এই পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন করেছিল।

এবার রাজ্য সরকারই নির্দেশিকা দিয়ে জানিয়েছে, পরীক্ষার্থীদের কথা মাথায় রেখে বাস-ট্যাক্সি-অটো পরিষেবা স্বাভাবিক রাখতে বলা হয়েছে। জয়েন্ট ও নিট পরীক্ষার্থীদের যাতে সুবিধে হয়, সেই কথা মাথায় রেখে উদ্যোগী হয়েছে রাজ্য পরিবহণ দফতর। সেই পরীক্ষার্থীদের কথা ভাবেই এবার বিশেষ পদক্ষেপ নিল রাজ্য সরকার। পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে পৌঁছতে যাতে কোন অসুবিধা না হয় সে কারণে সমস্ত রকম আয়োজন করছে রাজ্য সরকার। ভোর থেকেই অতিরিক্ত বাস নামাচ্ছে সরকারি পরিবহন নিগমগুলি। সরকারি বাস থাকছেই, পাশাপাশি পরীক্ষার দিনগুলিতে বেসরকারি বাস, ট্যাক্সি ও অটোরিকশার পরিষেবা নিশ্চিত করতে মালিক সংগঠনগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে পরিবহণ দফতর।

ইউনিয়নগুলিকে চিঠি দিয়ে বলা হয়েছে, আজ, মঙ্গলবার ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেন) পরীক্ষা চলবে। নজর রাখতে হবে, যাতে ওই দিনগুলিতে সকাল সাড়ে ছ’টা থেকে অটো এবং ট্যাক্সি রাস্তায় নামানোর কথাও বলা হয়েছে প্রশাসনের তরফে। এই করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা দিতে যেতে কেউ যাতে সমস্যায় না পড়েন সেটি নিশ্চিত করা হচ্ছে প্রশাসনের তরফে। পরিবহন দফতর সূত্রে খবর, মঙ্গলবার ভোর পাঁচটা থেকে এসবিএসটিসি এবং এনবিএসটিসি বাস পরিষেবা চালু করে দেবে। নিট আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর।

পরিবহণ দপ্তর আজ, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টা থেকেই কন্ট্রোলরুম চালু রাখবে। সেখানকার টোল-ফ্রি নম্বর হল: ১৮০০৩৪৫৫১৯২/০৩৩২৪৪২০২৭৮। হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর-৮৯০২০১৭১৯১। পরীক্ষা দিতে গিয়ে ছাত্রছাত্রীরা বাস বা গাড়ি পেতে সমস্যায় পড়লে সহায়তার জন্য ওই সব নম্বরে যোগাযোগ করতে পারবেন।

আরও পড়ুন:  করোনার জের, এক ধাক্কায় ৪,০০০ কর্মী ছাঁটাই করতে চলেছে কোকা-কোলা!

প্রসঙ্গত, NEET ও JEE পরীক্ষা আপাতভাবে স্থগিত রাখার জন্য প্রথম থেকেই রণংদেহি মেজাজে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে চিঠিও পাঠিয়েছেন। তবে সমস্যার সুরাহা হয়নি। অবশেষে আজ সর্বভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারিং (JEE) পরীক্ষায় বসছে পড়ুয়ারা। তবে এই পরীক্ষা ঘিরে এখন সর্বভারতীয় স্তরেও ক্ষোভ ক্রমশ চড়ছে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে।  অতিমারী পরিস্থিতিতে ছাত্রদের যাতে কোনও অলুবিধে না হয়, সেকথা চিন্তা করেই রাস্তায় যথাযথ সংখ্যক বাস, অটো, ট্যাক্সি নামানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

 

Related Articles

Back to top button
Close