fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

২১ শে জুলাই উপলক্ষে সেজে উঠেছে ঝাড়গ্ৰাম

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝাড়গ্রাম: রাত পোহালেই ২১ শে জুলাই। তার আগে সেজে উঠেছে ঝাড়্গ্রাম জেলা শহর সহ জেলার বিভিন্ন ব্লক এলাকা। এদিন সোমবার সকাল থেকে বিভিন্ন ব্লক এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাকর্মীরা প্রস্তুতি মিটিং, মিছিল করেন। পাশাপাশি জেলা শহর জুড়ে মুখ্যমন্ত্রীর হোডিং, প্লাকার্ড লাগায় যুব তৃণমূল ও ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মীরা। এদিন জামবনি ব্লক যুব তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে একটি মিছিলের আয়োজন করা হয়েছিল। আর এদিকে ঝাড়গ্রাম জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ঝাড়গ্রাম শহরের সর্বত্রই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দিয়ে হোডিং, প্ল্যাকার্ড লাগানোর কাজ চলছে জোরকদমে।

তৃণমূলের দলীয় পতাকা এবং প্ল্যাকার্ডে সেজে উঠেছে অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম শহর। এদিন শহরের এপ্রান্ত থেকে ও প্রান্ত পেপার মিলের মোড়, থেকে সারদা পিঠ স্কুল মোড় সাবিত্রী মন্দরের, সেটেলমেন্ট মোড়, বিশাল শপিংমল, পাঁচ মাথার মোড়, ওভার ব্রিজে, শিবমন্দির, সাবিত্রী সিনেমা মোড় এলাকায় হোডিং, প্লাকার্ড গুলি লাগানো হয়েছে। উল্লেখ্য এবার করোনা ভাইরাসের জেরে জেলা থেকে কলকাতার মূল ২১ শে জুলাই এর সভামঞ্চে হাজির থাকতে পারবেন শাসক দলের নেতাকর্মীরা। এবার ভার্চুয়াল সভা হবে। তবে মুখ্যমন্ত্রীর ভাষন যাতে সমস্ত তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা শুনতে পারেন তার জন্য জেলার প্রতিটি বুথে বুথে টিভি লাগিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কথা শুনবেন। ২১ শের সভামঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী নেতাকর্মীদের এবং সাধারণ জনগনের উদ্দেশ্যে কি বার্তা দেন তা শোনার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে জঙ্গলমহলের মানুষ।

এবিষয়ে ঝাড়গ্রাম জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি দেবনাথ হাঁসদা বলেন, “২১ জুলাই কে সামনে রেখে বিভিন্ন জায়গায় দলীয় পতাকা এবং প্ল্যাকার্ড লাগানোর কাজ চলছে। ২১ শের মঞ্চ থেকে জঙ্গলমহলের মানুষজনের জন্য কি বার্তা দেন তা শোনার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে। এছাড়াও দলের নেতাকর্মীরাও মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য শোনার জন্য টিভি, মোবাইল, ল্যাপটপের মাধ্যমে দেখবেন।”

Related Articles

Back to top button
Close