fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

সকালে নোটিশ দিয়ে বিকেলেই কর্মী ছাঁটাই শুরু কেন্দ্রের, দুশ্চিন্তা কর্মী মহলে

চাকরি জীবনে ৩০ বছর কিংবা ৫৫ বছরের বেশি বয়স হয়ে গেলে ৩ মাসের নোটিশে কেন্দ্র যে কাউকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করতে পারে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অশনি সংকেত? হঠাৎ করেই বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতই কেন্দ্রীয় সরকারের চাকরি থেকে ছাঁটাই পর্ব শুরু হল। তিন মাসের নোটিশে লোকসভা সেক্রেটরিয়টের এক কর্মীকে বরখাস্ত করা হল কাজ থেকে। গত ৩১ অগস্ট এই নোটিশ দিয়ে বলা হয়েছে, ওই দিন বিকেল থেকে তাঁকে আর কাজ করতে হবে না। পাশাপাশি, আগামী তিন মাসে বেতন-সহ যে সব সুযোগ-সুবিধা পেতেন, সেই সবই তাঁকে দিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আর কেন্দ্রীয় সরকারের এই নির্দেশে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। সরকারের পক্ষ থেকে যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে কাভেরী জয়সওয়াল নামের ওই কর্মী কাজ করতেন সংসদে। তিনি যুগ্ম ডিরেক্টর (ট্রান্সলেশন) পদে কর্মরত ছিলেন। কিন্তু কেন্দ্রের পক্ষ থেকে যে নির্দেশ জারি করা হয়েছে গত ৩১ অগস্ট, তাতে স্পষ্টই বলা হয়েছে, আগামী তিন মাসের বেতন-সহ সবরকম সুযোগ-সুবিধা দিয়ে তাঁকে ৩১ অগস্টই ছেড়ে দেওয়া হল। ১ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি অবসরজীবনে চলে যাবেন।

এভাবে একদিনের নোটিশে কেন্দ্রীয় সরকারের চাকরি হারানোয় সকলেই ভীত। উল্লেখযোগ্যভাবে গত সপ্তাহেই এই সংক্রান্ত এক নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র, যেখানে স্পষ্টই বলা হয়েছে, চাকরি জীবনে ৩০ বছর কিংবা ৫৫ বছরের বেশি বয়স হয়ে গেলে ৩ মাসের নোটিশে কেন্দ্র যে কাউকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করতে পারে। তবে ওই তিন মাসের সবরকম সুযোগ-সুবিধা ওই ব্যক্তি পাবেন।

কিন্তু বেসরকারি সংস্থার মতো সকালে নোটিশ দিয়ে বিকেলে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার ঘটনা ভারতের ইতিহাসে কখনও ঘটেছে কিনা তা সন্দেহের। এভাবে চাকরি থেকে ছাঁটাই করলে সরকারি জায়গায় যে নিরাপত্তা সেটাও শেষ হয়ে যাবে বলেই মনে করছে কর্মচারী ইউনিয়নগুলি।

Related Articles

Back to top button
Close