fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বাড়িতে থেকেই করোনাকে জয় উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্যর

সদস্য বলেন, মোটা টাকা খরচ করে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন নেই

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: বাড়িতে থেকেই করোনা জয়ী হলেন উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের পৌর প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় । না লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে নয়, রাজ্য সরকারের নির্দেশ মেনে বাড়িতে থেকেই করোনাকে হারানো সম্ভব । নিজের করোনা জয়ের সেই অভিজ্ঞতাই জানালেন উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের পৌর প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় ।

করোনা মানেই ভয় নয়, সঠিক নিয়ম মেনে চললে বাড়িতেই সুস্থ হয়ে ওঠা সম্ভব । উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের পৌর প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় ২৪ দিন অদৃশ্য করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করে নিজের বাড়িতে থেকেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন । বর্তমানে ভাল আছেন সত্যজিৎ বাবু । শরীর সুস্থ হতেই উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইছাপুর আনন্দমঠ এলাকার বাসিন্দাদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে খোঁজ খবর নেওয়া শুরু করেছেন, ওয়ার্ডের নাগরিকরা কেমন আছেন তা জানতে । নতুন করে মানুষের পরিষেবায় কাজে ফিরেছেন তিনি । শহিদ দিবসের দিন ইছাপুর আনন্দমঠ এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর তথা বর্তমান পৌর প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় । সেদিনই কিছুটা অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি । এরপর করোনা পরীক্ষা করা হয় তার, ২৪ তারিখ তিনি জানতে পারেন তিনি করোনা পজিটিভ ।

আরও পড়ুন: ব্যবসায়ীকে গুলি করে খুনের ঘটনায় ধৃত ৩ জনের ১৪ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ

তিনি বললেন, মানুষের কাজ করতে গিয়ে কিভাবে করোনা আক্রান্ত হয়ে ছিলাম, বুঝতে পারিনি । করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় নিজেই ইছাপুর আনন্দমঠের বাড়িতে হোম আইসোলেশনে চলে গিয়ে ছিলেন । ইছাপুর আনন্দমঠ এলাকার বাসিন্দা স্থানীয় তৃণমূল নেতা সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় করোনা আক্রান্ত এই খবরে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে ছিলেন উত্তর ব্যারাকপুর এলাকার বাসিন্দারা । রাজ্য সরকারের নির্দেশ মেনে বাড়িতে থেকে ডাক্তারি পরামর্শ মেনে চলেছেন সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় ।

আরও পড়ুন: প্রবল জলস্রোতে বাঁধের উপর গাছের ডালে ১৬ ঘন্টা ধরে আটকে যুবক, উদ্ধার করল বায়ুসেনা

তিনি বলছেন, “ইমিউনিটি শক্তি বাড়াতে বাড়ির রান্না করা ডাল,ভাত, রুটি, লেবু নিয়ম করে পেট ভরে খেলে বাড়িতেই সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন করোনা সংক্রমিত রোগী । করোনা সম্পর্কে কেউ আতঙ্কিত হবেন না । রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা মেনে চলুন । সচেতন থাকুন, মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করুন । করোনা আপনাকে কাবু করতে পারবে না । বাড়িতে থেকে করোনা থেকে সংক্রমণ মুক্ত হয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করা যায়, আমি নিজে তার প্রমাণ ।” তাই যাদের শ্বাস কষ্টের খুব সমস্যা নেই তারা বাড়িতে থেকেই সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন, এদিন এই বার্তাই দিলেন করোনা জয়ী উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের পৌরপ্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য সত্যজিৎ বন্দোপাধ্যায় ।

                 আরও পড়ুন: রাজভবনে নজরদারি! নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি রাহুল, মুকুলের

তার বক্তব্য, “মানুষকে বোকা বানাচ্ছে বেসরকারি হাসপাতাল গুলি । যে রোগের ওষুধ আবিষ্কার হয় নি । শারীরিক সক্ষমতার ভিত্তিতে রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়, সেই রোগ সম্পর্কে মানুষকে আতঙ্কিত করে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে বেসরকারি হাসপাতাল গুলি । দরকার নেই বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ।”

Related Articles

Back to top button
Close