fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

রমজানে ফাঁকা কাবা শরিফ, নিরানন্দ বিশ্বজুড়ে!

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আরবি ক্যালেন্ডারের নবম মাস রমজানে সারা বিশ্বের মুসলমানেরা রোজা রাখেন। মসজিদে গিয়ে জামাতবদ্ধ ভাবে তারাবি নামাজ পড়েন। শুরু হয় রোজার প্রথম দিন থেকেই ঈদের প্রস্তুতি। মহামারী করোনার কোপে এবার তা ম্লান। মক্কার কাবা শরিফে রমজান মাসে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসেন রোজাদার বা উপবাসকারীরা। কাবা পরিক্রমা বা তাওয়াফ, জমজমের পানীয়জল ও আরবের বিখ্যাত নানান স্বাদের খুরমা দিয়ে ভোরের সেহেরি ও সন্ধার ইফতারের মাঝে যে উচ্ছাস, তা এবছর কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাসের আতঙ্ক।

আরও পড়ুন: করোনায় ঐক্যবদ্ধ, পরিবেশরক্ষায় কি একজোট হবে বিশ্ব? উঠছে প্রশ্ন

মক্কায় এখন কারফিউ চলছে। তাই বাড়িতে বসেই ইবাদত করছেন মুসলিমরা। শুধু মক্কা নয়, প্রায় সব মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশই এখন লকডাউনের আওতায়। সেহেরি নিয়ে উচ্ছাস নেই, ইফতারের বাজার বসছে না। নেই তারাবি নিয়ে হুল্লোরও। ইসলামী ইতিহাসবীদরা বলছেন, পৃথিবীর বুকে এতো ম্লান রমজান আগে কখনও আসেনি। বিদেশীদের ওমরাহ (কাবা পরিক্রমা) বন্ধের পরেও স্থানীয়রা কাবা তাওয়াফ করতে পারতেন। কিন্তু রমজানের প্রথম দিনেই তা বন্ধ করে দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে, তুরস্কের গ্র্যান্ড বাজার ও পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের বিখ্যাত ইফতার বাজার এবছর বসেনি। একই অবস্থা দিল্লির চাঁদনি চক ও ঢাকার চক বাজারেও। পোষাক এবং মসলার দোকানগুলি বন্ধ।

Related Articles

Back to top button
Close