fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কাঁকসায় সংস্কার না হওয়ায় বন্ধ্যাত্বের পথে প্রাচীন পুকুর

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: নির্দেশিকাই সার। জল সংরক্ষণের বার্তা দিলেও ভরাট পুকুর ফিরল না আগের অবস্থায়। সংস্কারের অভাবে বন্ধ্যাত্বের পথে প্রচীন পুকুর। টানা বৃষ্টিতেও ভরল না পুকুর। রাজ্যজুড়ে জলসংরক্ষণের ফিরিস্তির মাঝে জলাভূমি সংরক্ষণ নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন উঠল। একই সঙ্গে প্রশাসনের ভূমিকাতেও ক্ষোভ চড়ছে এলাকাবাসীর মধ্যে। এমনই ঘটনা কাঁকসায়।

 

কাঁকসা ব্লকের পানাগড় এলাকায় এখনও পর্যন্ত ১০ টিরও বেশি পুকুর ভরাটের অভিযোগ রয়েছে। গত ২০১৭ সালে প্রথম অভিযোগ ওঠে রামচন্দ্র দিঘী। তার বুক চিরে পানাগড়-মোরগ্রাম সড়ক চলে যাওয়ায় দুপাশেই রয়েছে দিঘীটি। বর্ষায় আশপাশের পানাগড় গ্রাম, পাঠানপাড়া সহ একাধিক এলাকার জল ওই পুকুরে নিকাশি হয়। ওই পুকুরের জলে বাসিন্দারা নানান কাজকর্মে ব্যবহার করত। কিন্তু সংস্কার না হওয়ায় আগাছার জঙ্গলে ভর্তি হয়ে গেছে পুকুরটি। ২০১৭ সালে পুকুরটির চারপাশে পাঁচিল তুলে ছাই ভরাটের কাজ শুরু হয়। রাতারাতি ভরাট হতে দেখে আশপাশের বাসিন্দারা বিএলআরও, মৎস্য দফতর, মহকুমা ও জেলাশাসকের নিক অভিযোগ জানায়। ভরাট করার কাজ স্থগিত হলেও এখনও পর্যন্ত পূর্বের অবস্থায় ফেরানো হয়নি।

[আরও পড়ুন- বেহাল রাস্তার কারনে গৃহবন্দি একাধিক গ্রামের বাসিন্দারা]

চলতি মরশুমে গরমের শুরু থেকেই নিয়মিত বৃষ্টি হচ্ছে। হাসি ফুটেছে চাষীদের মুখে। প্রাণ ফিরে পেয়েছে জঙ্গলের গাছ। আবার গ্রীষ্মেও জলাশয়ে জল অটুট থাকায় মৎস্যচাষীদের মুখেও হাসি ফুটছে। তবে আড়াই মাসের বৃষ্টিপাতেও ভরল না রামচন্দ্র দিঘী। ১৯৫৫ সালের রাজ্য ভূমি সংস্কার আইন ও ইনল্যান্ড ফিসারি অ্যাক্ট অনুযায়ী পুকুর ভরাট দন্ডনীয় অপরাধ। আর প্রশ্ন এখানেই। সংস্কার না করে বন্ধ্যাত্বের পথে নিয়ে যাচ্ছে পুকুরটিকে। স্থানীয় পরিবেশ প্রেমী তথা পানাগড় নাগরিক মঞ্চের পক্ষ থেকে প্রকাশ দাস জানান,” আমরা প্রশাসনের ভূমিকায় বিরক্ত। একদিকে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে জল সংরক্ষণের বার্তা দিচ্ছে। অথচ বিশাল সব ভরাট হওয়া পুকুর সংস্কারের কোনও উদ্যোগ নেই। বিজেপির পূর্ব বর্ধমান জেলা সহ সভাপতি রমণ শর্মা বলেন, “শাসকদলের মদতে এসব পুকুর ভরাট চলছে। রাজ্য সরকারের জল সংরক্ষণের নাটক করছে। তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আগামীদিনে রাজনৈতিকভাবে আন্দোলনে নামব।” পশ্চিম বর্ধমান জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি সমীর বিশ্বাস জানান,” কোনওরকম পুকুর ভরাট রেয়াত করা হবে না। ভরাট পুকুর সংস্কারের বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে।”

 

Related Articles

Back to top button
Close