fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নোয়াপাড়ায় রহস্যজনকভাবে আগুন লেগে পুড়ে গেল কালীপুজোর প্যান্ডেল

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: রহস্যজনকভাবে আগুন লেগে পুড়ে গেল কালীপুজোর প্যান্ডেল। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার কাকভোরে উত্তর ২৪ পরগনার নোয়াপাড়া থানার অন্তর্গত গারুলিয়ার ফ্রেন্ডস অ্যাসোসিয়েশনের কালী পুজোয়। যদিও ওই প্যান্ডেলের মূর্তির কোনও ক্ষতি হয়নি। স্থানীয় বাসিন্দারা রবিবার ভোর সাড়ে ৪টে নাগাদ গারুলিয়ার তালতলা খেলার মাঠে ওই কালী পুজোর প্যান্ডেলে আগুন দেখতে পেয়ে ছুটে আসে। তারা নিজেরাই কোনও ক্রমে মায়ের মূর্তিটি উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী কংক্রিটের একটি মন্দিরে নিয়ে গিয়ে রাখেন। প্যান্ডেলের আগুন নিজেরাই জল দিয়ে নিয়ন্ত্রণে আনে স্থানীয় বাসিন্দারা। জানা গেছে, এদিন ভোর সাড়ে ৪ টে নাগাদ যখন আগুন লাগে প্যান্ডেলে, তখন ওই প্যান্ডেলে পুজো উদ্যোক্তারা কেউ উপস্থিত ছিলেন না। নোয়াপাড়া ফ্রেন্ডস অ্যাসোসিয়েশনের চলতি বছরের কালীপুজো ৪৯ তম বছরে পদার্পণ করেছিল।

পুজো উদ্যোক্তারা বলেন, শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত তালতলা মাঠে নিষ্ঠার সঙ্গে মা কালীর পুজো সম্পন্ন হয়। ততক্ষণ প্যান্ডেলের কোনও ক্ষতি হয়নি। তবে বাজি পোড়ানো চলতি বছরে নিষিদ্ধ করা হলেও বহিরাগত কিছু যুবক ফ্রেন্ডস অ্যাসোসিয়েশনের পুজো মণ্ডপের সামনে খেলার মাঠে বাজি পোড়াচ্ছিল। ক্লাবের সদস্যরা তাদের বাজি পোড়াতে নিষেধ করলে ওই যুবকদের সঙ্গে ক্লাব সদস্যদের বচসা শুরু হয়। যদিও তারপর ওই যুবকরা সেখান থেকে চলে যায়। তার কয়েক ঘণ্টা পরে এই আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। তা থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের ধারণা হয় সেই শত্রুতা থেকেই হয়তো দুষ্কৃতীরা ওই প্যান্ডেলে আগুন লাগিয়ে দিয়ে থাকতে পারে। যদিও কেউ আগুন লাগিয়েছে, এরকম ঘটনা দেখতে পায়নি কেউ।

তবে এই দুর্ঘটনা প্রদীপের আগুন থেকেও ঘটতে পারে বলে মনে করছে প্রশাসন। নোয়াপাড়া থানার পুলিশ আগুন লাগার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলেও এই ঘটনা কিভাবে ঘটেছে তার প্রমাণ পায়নি। এদিকে মায়ের পুজো সম্পন্ন হওয়ার পর দুর্ঘটনা ঘটায় পুজো শান্তিতেই মিটেছিল এই পুজো মণ্ডপে। রবিবার সকালে ফ্রেন্ডস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা পুজোর পর মায়ের মূর্তি গঙ্গায় বিসর্জন দিয়ে দেন।

Related Articles

Back to top button
Close