fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশবিনোদনহেডলাইন

ভেঙে ফেলা হল কঙ্গনার মুম্বইয়ের অফিস, ‘গণতন্ত্রের মৃত্যু’, টুইট কঙ্গনার

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: মুম্বই পৌছনোর আগেই ভেঙে ফেলা হল কঙ্গনা রানায়াতের অফিস বিল্ডিং। এরপর অভিনেত্রী নিজেই টুইট করে জানান যে, মহারাষ্ট্র সরকার  গুণ্ডারা ওনার সম্পত্তি ভাঙচুর করা শুরু করেছে। বুধবার সকালেই বিএমসি কঙ্গনা রানাওয়াতের মুম্বাইয়ের অফিসে নোটিশ ঝুলিয়েছিল। এই নোটিশে কঙ্গনার অফিসকে অবৈধ বলা হয়েছিল। এই নোটিশেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে, ভেঙে ফেলা হবে ওই অবৈধ অফিস। এরপরেই অফিস ভেঙে ফেলার কাজ শুরু হয়। সঙ্গে সঙ্গে টুইট করেন কঙ্গনা রানাওয়াত। তিনি লেখেন যে, গণতন্ত্রের মৃত্যু। মুম্বইকে ফের পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেন কঙ্গনা।

জানা গিয়েছে যে, বুধবার সকাল থেকেই কঙ্গনার মনিকর্ণিকা অফিসের সামনে হাজির হতে শুরু করেন বিএমসির কর্মীরা। বলিউড অভিনেত্রীর পালি হিলের ওই বাংলো এবং অফিস ভেঙে দেওয়া হবে বলে ক্রমাগত হুমকি দেওয়া হয়। শুরু করা হয় ভাঙচুরের কাজও। এর আগে কঙ্গনার অফিসে ঝোলানো হয়েছিল একটি নোটিশ। সেই নোটিশে ২৪ ঘণ্টার সময় দেওয়া হয়েছিল।  কিন্তু কঙ্গনা সাত দিনের সময় চেয়েছিলেন।

প্রসঙ্গত,  ​কঙ্গনার বিরুদ্ধে  মাদক চক্রে জড়িত থাকার অভিযোগে সরব হয়েছেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ। মুম্বই পুলিশ কঙ্গনার বিরুদ্ধে তদন্ত করবে বলেও স্পষ্ট জানান অনিল দেশমুখ।  মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ওই মন্তব্যের পর পালটা উত্তর দেন কঙ্গনা। তিনি বলেন, অনিল দেশমুখকে স্বাগত। তাঁর মাদক পরীক্ষা করানো হোক। তাঁর সঙ্গে মাদকের কারবারী এবং পাচারকারীদের যদি কোনও সম্পর্ক প্রকাশ করা যায়, তাহলে চিরকালের মতো মুম্বই ছেড়ে চলে যাবেন তিনি।

 

Related Articles

Back to top button
Close