fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কাটোয়া হাসপাতালের রোগীদের মধ্যে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, আতঙ্ক এলাকায়

দিব্যেন্দু রায়, কাটোয়া: কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে রোগীদের মধ্যে ক্রমাগত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায়  আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। জানা গেছে, কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে প্রসূতি বিভাগের বেশ কয়েকজন  রোগীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার পরেই বিভাগটিতে রোগী ভর্তি বন্ধ করে দেওয়া হয়। প্রসূতি বিভাগ সহ গোটা হাসপাতাল  স্যানিটাইজ করা হয়। কিন্তু এত কিছু করেও হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ আটকানো যাচ্ছে না বলে খবর৷ ফলে কাটোয়া হাসপাতাল থেকেই এলাকায় করোনার সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে ধারনার সৃষ্টি হয়েছে এলাকায়।

যদিও তা মানতে রাজি নন কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাল সুপার রতন শাসমল। তিনি বলেন, “আমাদের হাসপাতালে কেউ ভর্তি হলে পরের দিনেই আমরা তার সোয়াবের নমুনা সংগ্রহ করছি। তাই আমাদের হাসপাতালে ভর্তি হয়ে কেউ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন এটা আদৌ ঠিক নয়। তবে সাধারণ মানুষদের মধ্যে ভীতি দূর করতে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।”

[আরও পড়ুন- রাজ্যজুড়ে নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে বিজেপির মহিলা মোর্চার বিক্ষোভ]

প্রশাসন সূত্রে খবর, চলতি বছরের এপ্রিল মাস থেকে গত রবিবার পর্যন্ত কাটোয়া মহকুমা এলাকায় কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ১৫৫ জন। তার মধ্যে ৪৪ জন কাটোয়া পুর এলাকার। বিগত প্রায় কুড়ি দিনের মধ্যে কাটোয়া হাসপাতালের প্রায় ৩৯ জন রোগীর শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে বলে পুরসভা সূত্রে  জানা গেছে। আক্রান্তদের মধ্যে অধিকাংশ হাসপাতালের প্রসূতি ও মহিলা বিভাগের রোগী।

কাটোয়ার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “কাটোয়া এলাকায় যেসমস্ত করোনা আক্রান্তদের সন্ধান মিলেছে তাদের মধ্যে সিংহভাগের ক্ষেত্রেই কাটোয়া হাসপাতালের সঙ্গে কোনও  না কোনও ভাবে সম্পর্ক ছিল বলে দেখা যাচ্ছে।  স্বভাবতই হাসপাতাল নিয়ে একটা আতঙ্ক তৈরি হচ্ছে। আমি হাসপাতাল কতৃর্পক্ষের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলেছি। বিভাগগুলি কয়েকদিন বন্ধ রেখে পুরো হাসপাতাল যাতে স্যানিটাইজড করা হয় সেই প্রস্তাব হাসপাতাল  কর্তৃপক্ষের কাছে রেখেছি।”

 

Related Articles

Back to top button
Close