fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

যৌনতার ভিডিও ভাইরাল,আত্মহত্যার চেষ্টা কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের ডেপুটি সুপারের

নিজস্ব সংবাদদাতা,কাটোয়া: যৌনতার ভিডিও ভাইরাল হতেই ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের ডেপুটি সুপার অনন্য ধর। বর্তমানে তিনি কাটোয়া হাসপালেই চিকিৎসাধীন । কাটোয়া হাসপাতাল সুপার রতন শাসমল ডেপুটি সুপারের আত্মহত্যার চেষ্টার কথা স্বীকার করেছেন৷ তিনি জানিয়েছেন,বর্তমানে ডেপুটি সুপারের শারিরীক অবস্থা স্থিতিশীল ।

কাটোয়ার বাসিন্দা  এক মহিলার নামে  ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ফেসবুক  গ্রুপে  সোমবার রাতে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয় । ৫৩ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা গেছে হাসপাতালের একটি ঘরে টেবিলে নিজের হাত ব্যাগটি রেখে পাশেই কোনও কিছুর উপরে  এক মহিলা বসে রয়েছেন । ঘরের দরজা খোলাই ছিল। অল্প কিছুক্ষনের মধ্যেই ঘরে প্রবেশ করেন ডেপুটি সুপার অনন্য ধর । ঘরে ঢোকার পর ওই  মহিলার নিম্নাংশের কাপড় সরিয়ে নিতম্বে চুম্বন করতে দেখা গেছে ডেপুটি সুপারকে । যদিও ওই মহিলাকে  ডেপুটি সুপারের এই আচরনের  কোনও প্রতিবাদ না করে অসহায়ের মত মাথা হেঁট করে বসে থাকতে দেখা গেছে । এরপর মহিলা নিজের হাত ব্যাগটি নিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করেন । তখন ডেপুটি সুপার কিছু বললে প্রত্যুত্তর দিতে দেখা যায় ওই মহিলাকে। তারপর দু’জনকেই ঘর থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা যায় ।  ভিডিও শেষ হয়ে যায় ।

আরও পড়ুন: কমছে ধসের প্রবণতা, গাছ লাগিয়ে মাটি ধস ঠেকানোয় নজির কাজোড়া পঞ্চায়েতের

মহিলার গায়ে চাদর ও ডেপুটি সুপারের পড়নে শীতের পোশাক দেখে বোঝা যায় ভিডিওটি শীতকালের কোনও এক দিনের । গোপন ক্যামেরায় রেকর্ড করা হয়েছে। সোমবার রাতে ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করতেই নিমেষের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়৷ আর তার পরেই মঙ্গলবার সকালে স্থানীয়রা খবর পান ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন কাটোয়া পুর এলাকার সুবোধ স্মৃতি রোডের বাসিন্দা  হাসপাতালের ডেপুটি সুপার অনন্য ধর।  পরিবারের লোকজন  তাঁকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কাটোয়া হাসপাতালে ভর্তি করে ৷

ভিডিও পোস্ট করার পাশাপাশি কাজ দেওয়ার নাম করে হাসপাতালের মধ্যে  মধুচক্র চালানোর মত গুরুতর অভিযোগ তোলা হয়েছে ডেপুটি সুপারের বিরুদ্ধে । এদিকে এই অভিযোগ ঘিরে  চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায় । এই বিষয়ে হাসপাতাল সুপার রতন শাসমল বলেন, ‘ওই ভিডিও ফুটেজের বিষয়টি জানি ।  ভিডিও দেখে মনে হচ্ছে হাসপাতালের গ্রাউন্ড ফ্লোরে রেকর্ড করা হয়েছে। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।’ পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। দোষী প্রমান হলে অবশ্যই শাস্তি পাবে ।

Related Articles

Back to top button
Close