fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

যত কান্ড কোরিয়ায়! কোমাচ্ছন্ন কিম, আড়ালে বোনের হাতে চলে গিয়েছে ক্ষমতার ব্যাটন?

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্কঃ ফের রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে কোরিয়া উপদ্বীপে! কোরিয়ার শাসক কিম জং উন কোমায়৷ এমনই জানালেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রাক্তন শাসক কিম দায় জাং-এর এক সহচর৷ বিশ্বের সব থেকে বেশি ক্ষতিশালী শাসক এবং উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং-এর শারীরিক অবস্থা নিয়ে কিছু দিন আগেই জল্পনা শুরু হয়েছিল৷ তাঁর বোন কিম য়ো জং-এর হাতে শাসন ক্ষমতা তুলে দেন কিম জং৷ তারপর থেকে মনে করা হতে থাকে যে কিমের শরীর খুবই খারাপ এবং মৃত্যুর তাঁর আশঙ্কা থেকেই এভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর হয়েছে উত্তর কোরিয়ায়৷

সোশ্যাল মিডিয়ার একটি পোস্টে দক্ষিণ কোরিয়ার কূটনীতিক চ্যাং-সং-মিন জানান যে, অসুস্থ বা সেনা অভ্যুত্থানের ফলে সরে না গেলে উত্তর কোরিয়ার কোনও শাসকই নিজের ক্ষমতা বা গদি ছাড়েন না৷ এই তত্ত্বের থেকেই তিনি জোর দিয়ে বলেন যে কিম-জং খুবই অসুস্থ এবং শয্যাশায়ী৷ সে কারণে এভাবে বোনের হাতে দেশের শাসন ভার তুলে দিয়েছেন তিনি৷ নচেৎ কোনও পরিস্থিতিতেই তখত্ থেকে তিনি সরতেন না৷

এমনকি গত কয়েক মাস ধরে যে সব কিমের ছবি প্রকাশিত হচ্ছে, তা জনগনের চোখে ধুলো দিতেই৷ কোনও ছবি আসল নয় বলে দাবি করেন চ্যাং-সং-মিন৷ আমার অনুমান, কিম কোমায় রয়েছেন, তবে তাঁর মৃত্যু হয়নি৷ এখনও পুরোপুরি উত্তরাধিকারের পর্ব চূড়ান্ত হয়নি৷ তাই কিম-য়ো-জংকে সামনে আনা হয়েছে কারণ শাসক শূন্যভাবে দেশ চলতে পারে না৷ তবে যেহেতু কিম কোমায়, মারা যাননি, তাই অন্য কাউকে পুরোপুরি দেশের শাসক বলে চিহ্নিত করা হয়নি, দাবি  চ্যাংয়ের৷

এদিকে কোরিয়ার আর্থিক সংকট ও খাদ্যাভাব দূরীকরণে সম্প্রতি পোষা কুকুর হত্যার নিদান দিয়েছেন সুপ্রীম লিডার কিম। এমনটা জানিয়েছে  উত্তর কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম।যা নিয়ে রীতিমতো দেখা দিয়েছে শোরগোল। এমন অবস্থায় কিম আদৌ ক্ষমতায় সক্রিয় রয়েছেন, নাকি তিনি সত্যিই কোমাচ্ছন্ন? কে হতে চলেছেন পরবর্তী শাসক, নাকি এসবটাই দক্ষিন কোরিয় প্রপাগান্ডা? পর্দার পেছনে ঘনাচ্ছে রহস্য।

Related Articles

Back to top button
Close