fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

করোনা পরীক্ষা করতে পুরসভায় কিয়স্ক

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: পুরসভায় বসানো হল করোনা কিয়স্ক মেশিন। বৃহস্পতিবার পুরসভার সদরদফতরে বসানো হয় এই মেশিনের একটি মডেল। মূলত যে সব স্বাস্থ্য কর্মীরা শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে লালা রস সংগ্রহ করে তাদের নিরাপত্তার কথা ভেবেই এই মেশিন বসানো হল। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গেছে পিপিই পোশাক যথেষ্ট নয়। লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করতে গিয়ে করোনা সংক্রমণের শিকার হয়ে পড়ছেন অনেকে। তাই এবার তাদের সুরক্ষা দিতে কলকাতা পুরসভায় বসানো হল করোনা কিয়স্ক।

করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে বারবার বলা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব অবলম্বন করতে। কিন্তু কাজের সময়ে অনেকেই অজান্তেই বিধি লঙ্ঘন করে ফেলেছেন। তাই এবার পুরসভার যে সমস্ত টেকনিশিয়ানরা লালা রস সংগ্রহ করতে যাবেন তারা ব্যবহার করবেন এই কিয়স্ক। কেরলের বাম সরকার এই মেশিনের দেশের মধ্যে প্রথম প্রয়োগ করে ছিল। এবার কলকাতায় পুরসভাতে চালু হল করোনা কিয়স্ক।

ইতিমধ্যেই মোবাইল ভ্যান করে কলকাতা পুরসভার অধীনস্থ বিভিন্ন ওয়ার্ডে ঘুরে ঘুরে শুরু হয়েছে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করার কাজ। সে ক্ষেত্রে কলকাতা পুরসভার টেকনিশিয়ানরা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা পিপিই পোশাক পরে লালা রস সংগ্রহ করছেন। কিন্তু এই টেকনিশিয়ান স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তার দিকে কোনও ফাঁক রাখতে চাইছে না পুর কর্তৃপক্ষ। সেই কারণে নমুনা হিসেবে পরীক্ষামূলকভাবে একটি কিয়স্ক আনা হয়েছে পুরসভায়।

পুরসভা সূত্রে খবর এই কিয়স্কের ভেতরে থাকবেন টেকনিশিয়ান ও স্বাস্থ্য কর্মীরা। আর কি আজকের কাচের ঘরের বাইরে থাকবেন সন্দেহভাজন ব্যক্তিরা যাদের লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। এর ফলে সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের সঙ্গে পুরসভার স্বাস্থ্য কর্মীদের সরাসরি যোগাযোগ হবে না যার ফলে সংক্রমণ ছড়ানো সম্ভাবনা থাকবে অনেকাংশেই কম। কারণ কলকাতা পুরসভার অন্তর্গত বহু এলাকাতেই রয়েছে বস্তি। এই যে সমস্ত এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব অবলম্বন করা অনেকাংশেই সম্ভব হয় না। তাই সেই সমস্ত ক্ষেত্রে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায় সেই কারণেই কিয়স্ক ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিল পুর কর্তৃপক্ষ।

Related Articles

Back to top button
Close