fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

একটি গাছ একটি প্রাণ, মুমূর্ষু গাছের প্রাণ বাঁচাতে উদ্যোগী কলকাতা পুরসভা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: একটি গাছ একটি প্রাণ। শুধু তাই নয় গাছ আমাদের অক্সিজেন ও ছায়া দেয়। বাতাসে কার্বন ডাই অক্সাইডের ভারসাম্য বজায় রাখে। তাই এবার মুমূর্ষু রোগীর মত উপরে পরা গাছের প্রাণ বাঁচাতে চিকিৎসকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে কলকাতা পুরসভা। কলকাতা জুড়ে হাজার হাজার উপড়ে পড়া গাছেদের বাঁচিয়ে তোলার কাজে নামল পুরসভা।

বৃহস্পতিবার শহর জুড়ে উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্রই একই চিত্র ধরা পরল। ফুটের উপর শুয়ে থাকা গাছের পুনরুজ্জীবনের কাজ চলছে। গত কয়েক দিন আগেই আমফান ঘুর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে ওদের প্রাণ বিপন্ন হয়েছে।
দক্ষিণ কলকাতার প্রতাপাদিত্য রোডে ঝড়ে পড়ে যাওয়া আম সহ আরও বেশ কয়েকটি গাছ ফুটপাথে শুয়ে ছিল। সেই সমস্ত গাছকে ফের বসানো হল। মাটি থেকে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হলেও সামান্য অংশে এখনও মাটি লেগে থাকা এমন গাছেদের ফের সেই একই জায়গায় বসানোর কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে।

পুরসভা সূত্রের খবর, একটি বিশেষ দল শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে ঘুরে দেখছেন কোন কোন গাছকে নতুন জীবন দেওয়া যায়। কিন্তু কীভাবে সম্ভব ছিন্নমূল গাছেদের শরীরে আবার প্রাণ প্রতিষ্ঠা করা? ক্রেন ও আর্থ মুভার যন্ত্রের সাহায্যে পুর কর্মীরা সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের তত্ত্বাবধানে সেই সমস্ত উপড়ে পড়া গাছ বসানোর কাজ করছেন।

মাটির গোড়া ভালো করে প্রস্তুত করে গাছেদের শরীরে বিশেষ রাসায়নিক প্রয়োগের মাধ্যমে তা পুনরায় বসানো হচ্ছে। যাতে দ্রুত নতুন ডালপালা সতেজ হয় এবং গাছ যাতে ফাঙ্গাস আক্রান্ত না হয় সে কারণেই গাছেদের শরীরে লাগানো হচ্ছে বিশেষ রাসায়নিক । টালিগঞ্জ অঞ্চলে নজরে এল গাছেদের পুনরুজ্জীবনের পুর উদ্যোগ।

স্থানীয় সাংসদ মালা রায় বলেন, ‘যেভাবে গাছেদের নতুন জীবন দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে তাতে আমরা আশাবাদী এই সমস্ত গাছ আবার ফুল ও ফল দেবে’।
উদ্যানপালন বিভাগের বিশেষ অফিসার চঞ্চল কুমার সরকারের কথায়, ‘ অতীতে অনেক জায়গাতেই এই ভাবে গাছেদের পুনরুজ্জীবনে নজিরবিহীন সাড়া মিলেছে। কলকাতাতেও আমরা সফল হব। তবে গাছ বসিয়েই কাজ শেষ তা নয়। নিয়মিত পুরসভার জলের ট্যাঙ্কার করে গাছের গোড়ায় জল ও পরিচর্যা করা হবে। কার্যত ‘মৃত’কে ‘জীবিত’ করতে গাছের ডালপালা নষ্ট হয়ে গেছে সেগুলি ছেঁটে ফেলে সেই স্থানে বিশেষ রাসায়নিক ব্যবহার করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, ‘গাছেদের শরীরের যে সমস্ত অংশে এই ধরনের রাসায়নিক প্রয়োগ করা হচ্ছে সেখান থেকেই নতুন ডালপালা গজাবে’ । ঝড়ের তাণ্ডবে পড়ে যাওয়া সব গাছকে হয়তো এভাবে বাঁচানো যাবে না। তবে তার মধ্যে যে কটি গাছকে বাঁচানো যায় সেটাই বর্তমান সময়ে পরিবেশের কথা ভেবে অত্যন্ত প্রয়োজন বলে মনে করছেন পরিবেশবিদরা।

Related Articles

Back to top button
Close