fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অতিমারিতে বস্তি উন্নোয়নে শ্রমিক পাওয়া নিয়ে চিন্তায় পুরসভা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা পুরসভা দ্রুততার সঙ্গে শেষ করতে চায় বস্তি উন্নয়নের কাজ। লকডাউনের জন্য মাঝপথেই থমকে গিয়েছিল বস্তির উন্নয়নের কাজ। তারপর সুপার সাইক্লোন আমফান এসে সেই কাজকে অনেকাংশেই বাড়িয়ে দিয়েছে। আমফানের ফলে বস্তি অঞ্চলের অনেকটাই ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

তাই আবার বস্তির মানোন্নয়নের ক্ষেত্রে হাত দিতে চাইছে কলকাতা পুরসভা। সংশ্লিষ্ট বিভাগের নির্দেশ অনুযায়ী বর্ষার আগমনের আগেই শেষ করতে হবে সেই উন্নয়নের কাজ। তাই তড়িঘড়ি কলকাতা পুরসভার অন্তর্গত প্রায় সাড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার বস্তির উন্নয়নে উদ্যোগী হয়েছে পুরসভা। কিন্তু এই সময় ঠিকমতো শ্রমিক পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে অবশ্য সন্দেহ প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ।

ঘূর্ণিঝড়ের জেরে শহরের একাধিক বস্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পুরসভা সূত্রে খবর, প্রাথমিকভাবে সেই সব জায়গায় ত্রিপল সহ অন্যান্য ত্রাণসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। এদিকে, বিভিন্ন বস্তির ঘর, গুমটি, দোকান সহ প্রায় ৩০০-৪০০ জনের ক্ষতিপূরণ প্রাপকের তালিকা ইতিমধ্যেই জমা করা হয়েছে। পুরসভার অধীনস্থ যেসকল বস্তি সংক্রমিত এলাকার বাইরে রয়েছে সেই গোষ্ঠীগুলোকে উন্নয়ন করার কাজ কবে থেকে শুরু হবে বা কিভাবে উন্নয়ন করার কাজ হবে সেই প্রসঙ্গে ইতিমধ্যে পুরভবনে বৈঠক হয়ে গিয়েছে।

বৈঠকে ঠিক হয়েছে বস্তি গুলিতে পেভার ব্লক বসানো, নিকাশি নালার উন্নতি, শৌচালয়, আলো সহ নানাবিধ সৌন্দর্যায়নের কাজ করা হবে। দরকার হলে এ সমস্ত কাজ যে শ্রমিকরা করবেন তাদেরকে কাজ চলা কালীন ওই বস্তি এলাকায় থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করে দেবে পুরকর্তৃপক্ষ। কিন্তু এই করোনা অতিমারির সময় কতটা শ্রমিক পাওয়া যাবে তা নিয়ে অবশ্য চিন্তার ভাঁজ পড়েছে পুর কর্তৃপক্ষের কপালে।

Related Articles

Back to top button
Close