fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কোলাঘাট ব্লকে ফের আতঙ্ক, তিনজনের করোনা পজেটিভ

বাবলু ব্যানার্জি, কোলাঘাট: এক সপ্তাহের মধ্যে কোলাঘাট ব্লকে ফের কোরোনা আতঙ্ক। তিনজনের শরীরে করোনা পজেটিভ ধরা পড়ল।

এক সপ্তাহ কাটেনি, কোলাঘাট ব্লকের বৃন্দাবনচক অঞ্চলের পরমানন্দপুর গ্রামের এক করোনা আক্রান্ত যুবককে ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল। করোনাকে হারিয়ে নতুন জীবন পাওয়ার জন্য সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। ঘটা করে তখন বলা হয়েছিল কোলাঘাট ব্লক করোনা মুক্ত হিসাবে চিহ্নিত।

কিন্তু সপ্তাহ কাটতে না কাটতেই একইসঙ্গে তিনজনের দেহে করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসার পর নতুন করে আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়। গোপালনগর অঞ্চলে আইন গ্রাম, বৃন্দাবনচক অঞ্চলের দু নম্বর বুথ, ও পুলশিটা অঞ্চলের কুমারহাট গ্রামে এই রিপোর্ট আসার পরেই সংশ্লিষ্ট এলাকার করোনার আতঙ্কে মানুষ জর্জরিত।

জানা যায় এরা প্রত্যেকেই কোন না কোন রাজ্যে নিজেদের পেটের টানে কাজ করতে গিয়েছিল। এদের বয়স কুড়ি থেকে চল্লিশের এর মধ্যে। এদেরকে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার বড়োমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। প্রত্যেক জনের পরিবারকেও কন্টেইনমেন্ট জোনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কোলাঘাট ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আধিকারিক শিব শংকর খাঁ বলেন, তিনটি অঞ্চলের যারা যারা আক্রান্ত হয়েছেন স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে করোনা সংক্রামন গাড়ি করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আশপাশের সকলকে সতর্কতামূলক বিভিন্ন বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন মারফত ব্যবস্থা নেওয়া কথা বলা হয়েছেে।
অন্যদিকে এই ব্লকের সাধারণ মানুষের অভিযোগ প্রশাসনের দিকে। যে অঞ্চলগুলিতে করোনা আক্রান্ত সেই সব অঞ্চলগুলিতে প্রশাসন ঠিকমতো নজর দিচ্ছে না।

আক্রান্ত পরিবারের আশপাশে যারা রয়েছেন তাদেরকে সাবধানতা অবলম্বন করার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

বৃন্দাবনচক, পুলশিটা,ও গোপালনগর অঞ্চলের প্রধান হিমাংশু শেখর নায়েক, গোবিন্দ মান্না, ও আসগর আলীকে করোনা প্রসঙ্গে জিজ্ঞেসা করা হলে তারা বলেন, পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকার সদস্যদের অবগত করা হয়েছে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও গ্রহণ করছে। তবে প্রধানদের এইসব সান্ত্বনা বাক্য যে মোটেই পছন্দ নয় তা ওই এলাকার আতঙ্কগ্রস্ত মানুষজনের কথাবার্তার মধ্যেই বোঝা গেছে।

Related Articles

Back to top button
Close