fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কলকাতা পুরসভার জলাশয়ে ছট পুজো, পরিদর্শনে ফিরহাদ

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়,কলকাতা: নভেম্ব্ব: আদালতের নির্দেশকে মান্যতা দিয়ে ছট পুজোর জন্য ইতিমধ্যেই শহর জুড়ে কৃত্রিম জলাশয় তৈরি করতে শুরু করেছে কলকাতা পুরসভা। এ যেন একেবারে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো। কিন্তু আদালতের নির্দেশকে মান্যতা দিতে হবে। আবার ধর্মীয় আচার ও পালন করতে হবে। তবে রাজ্য বিজেপির একাংশের মতে, সামনেই একুশের ভোট তাই তার আগে কোনও সম্প্রদায় কেই চটাতে চায় না শাসক দল। তাই বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করে তোষণের রাজনীতিকে জিইয়ে রাখছে তৃণমূল।

বুধবার প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে সেই কৃত্রিম জলাশয় পর্যবেক্ষণে গেলেন পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম। পুণ্যার্থীদের জন্য তাঁদের বাড়ির কাছাকাছি এই কৃত্রিম জলাশয় তৈরি করা হচ্ছে বলে এদিন জানান তিনি।

রবীন্দ্র সরোবরে আর ফুল–মালা ভাসিয়ে পুজো করা যাবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে গ্রিন ট্রাইব্যুনাল। এই পরিস্থিতিতে পুণ্যার্থীদের জন্য কৃত্রিম জলাশয় তৈরি করছে কলকাতা পুরসভা৷ তাতে খানিকটা দুধের স্বাদ ঘোলে মিটবে। এই কাজ কেএমডিএ ও কলকাতা পুরসভা যৌথভাবে করছে৷ এ বছর মোট ৪৪টি ঘাট করা হয়েছে। তার মধ্যে ১৬টি কৃত্রিম জলাশয় রয়েছে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম।

ঘাট গুলিতে সব রকম ব্যবস্থা রাখা হবে জানিয়ে এদিন ফিরহাদ বলেন, কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে নির্বিঘ্নে ছট উদ্‌যাপনের যাবতীয় বন্দোবস্ত করে দেওয়া হচ্ছে। যেমন, যেখানে কৃত্রিম জলাশয় থাকছে তার পাশে বায়ো-টয়লেট, পোশাক পরিবর্তনের ঘর এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে আলোর ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, যাঁরা ছট পুজো করবেন, তাঁদের যাতে কোনো রকম অসুবিধা না হয় ,সে বিষয়গুলি মাথায় রেখেই এই কৃত্রিম জলাশয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে কৃত্রিম জলাশয়গুলোকে স্থায়ী ভাবে রাখা যায় কি না, তা নিয়েও পরবর্তীকালে ভাবনাচিন্তা করা হবে বলে এ দিন মন্তব্য করেছেন ফিরহাদ হাকিম।

অন্যদিকে, ঘাটগুলিতে শৌচালয় এবং মহিলাদের পোশাক পরিবর্তনের আলাদা জায়গা করার পাশাপাশি থাকবে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থাও৷ সামাজিক দূরত্ব বিধি মানা হচ্ছে কিনা, বিশেষ নজরদারি চলবে৷ পরিবেশ আদালতের কাছে কলকাতা মেট্রোপলিটন ডেভেলপমেন্ট অথরিটি তথা কেএমডিএ আবেদন করেছিল, শর্ত সাপেক্ষে ছটপুজো করতে দেওয়া হোক রবীন্দ্র সরোবরে। কিন্তু কেএমডিএ’‌র আর্জি খারিজ করে দেয় পরিবেশ আদালত।

এই প্রসঙ্গে, পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য দেবাশিস কুমার জানান, ছটপুজোয় পুণ্যার্থীদের যাতে কোনও অসুবিধে না হয় তার জন্য গঙ্গার ঘাট ও কৃত্রিম জলাশয়গুলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক৷ কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে সব ঘাটে মাস্ক বিলি করা হবে৷

avishek da

Related Articles

Back to top button
Close