fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

নেপথ্যে প্রমোটিং চক্র! প্রাক্তন পুলিশ কর্তার অধ্যাপিকা মেয়েকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত, ধৃত ১

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রত্যেকদিন সকালে এবং সন্ধ্যাবেলায় রাস্তার কুকুরকে খাওয়ানোর অভ্যাস ছিল প্রাক্তন পুলিশকর্তারা শিশিরকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়ের কন্যা শ্রাবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ছটা নাগাদ একইভাবে হরিদেবপুরে যদুনাথ উকিল রোডের সেই জন্যই রাস্তায় বেরিয়ে ছিলেন তিনি। কিন্তু আচমকাই ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হতে হল প্রাক্তন পুলিশ কর্তার অধ্যাপিকা মেয়েকে। যদিও শ্রাবন্তী ও তার পরিবারের দাবি, প্রমোটিং চক্রের কারণেই তাকে আক্রান্ত হতে হয়েছে। তবে হরিদেবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করার পর গ্রেফতার করা হয়েছে মনা মোদক নামে একজনকে।
 জানা গিয়েছে, প্রাক্তন ওই পুলিশ কর্তার বাড়ি প্রোমটিং করার জন্য মাঝেমধ্যেই চাপ দেওয়া হত। প্রোমোটারদের প্রস্তাবে তিনি রাজি ছিলেন না। ফলে স্থানীয় প্রোমোটিং চক্রের অনেক দিন ধরেই ওই পরিবারের উপর রাগ ছিল। কুকুরকে খাওয়ানোর ঘটনাকে উপলক্ষ করেই কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন ওই কর্তার মেয়েকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।
সূত্রের খবর,  হরিদেবপুর থানা এলাকার ১১৫ নম্বর ওয়ার্ডের যদুনাথ উকিল রোডে রাতে কুকুরদের খাবার খাওয়াতে বেরিয়েছিলেন শ্রাবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময় পাড়ার মধ্যেই ওই বিষয় এই বিষয় নিয়ে শ্রাবন্তীদেবীর ওপর হামলা চালায় এক পুরুষ ও এক মহিলা। অভিযোগ কথাবার্তার মধ্যেই ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয় প্রাক্তন পুলিশ কর্তার কন্যাকে। আহত হলেও  হামলাকারী পুরুষটিকে চিনতে পারেন শ্রাবন্তীদেবী।  যদিও সঙ্গী মহিলাটিকে চিনতে পারেননি তিনি। তিনি জানান,  হামলার সময় ওই রাস্তা দিয়েই ফিরছিলেন তাঁর বাবা। প্রাক্তন পুলিশ কর্তা শিশিরকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় মেয়ের চিৎকার শুনে এগিয়ে যাওয়াতেই ভয় পেয়ে চম্পট দেয় হামলাকারীরা।
 আহত শ্রাবন্তীদেবীকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে হরিদেবপুর থানায় তিনি ওই প্রতিবেশী এবং অচেনা মহিলার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তার প্রেক্ষিতেই পুলিশ গ্রেফতার করে একজনকে। যদি হাসপাতালে শুয়েই পুলিশকর্তার কন্যার দাবি,

বিভিন্ন ছোট খাটো ঘটনাকে উপলক্ষ করে তাদের বাড়িটিকে প্রমোটিং করার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে অনেকদিন ধরেই। টাকার প্রলোভন থেকে হুমকি দেখানো হচ্ছে। এই নিয়ে আগে দু’বার পুলিশেরও দ্বারস্থ হয়েছে বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবার।  সেই মামলা তুলে নেওয়ার জন্য শ্রাবন্তীদেবীর ওপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছিল। কিন্তু তিনি তাতে রাজি না হওয়ায় বুধবারের হামলা বলে মনে করছেন পুলিশকর্তার কন্যা।  যদিও পুলিশি তদন্তে তার আস্থা রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button
Close