fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কলকাতা মেডিকেলের বড়সড় সাফল্য, একদিনে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছে ৬০ করোনা রোগী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্কের মাঝেও বড় সাফল্য পেল কলকাতা মেডিকেল। শতাব্দী প্রাচীন এই হাসপাতালকে কোভিড চিকিত্‍সার জন্য ব্যবহার করা শুরু হয়েছে প্রায় এক মাস হতে চলল। করোনা হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণার পরেই একাধিক বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছিল কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিষেবা। দফায় দফায় কর্মী বিক্ষোভ, পিপিই, মাস্ক, স্যানিটাইজার, সরঞ্জাম না পাওয়ার অভিযোগ ওঠে। তার মাঝেও উঠে এল সাফল্য।

এবার সেখানেই বড়সড় সাফল্য। সব ঠিকঠাক থাকলে সোমবারই ৬০ জন কোভিড রোগীকে বাড়ি ফেরানো হবে। তাঁরা প্রত্যেকেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে জানিয়েছে মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ। এর আগে এত জনকে একদিনে সুস্থ করে বাড়ি ফেরানোর রেকর্ড রয়েছে শুধুমাত্র এমআর বাঙ্গুর হাসপাতালের। সেদিক থেকে কোভিড আক্রান্তদের চিকিত্‍সায় নয়া নজিরের পথে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল।

আরও পড়ুন: ক্লাবকে কোটি টাকার দানখয়রাতি করেন, গাছ কাটার ইলেকট্রিক কুড়ুল নেই! মমতাকে তোপ বাবুলের

রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান তথা রাজ্যের মন্ত্রী নির্মল মাঝি জানিয়েছেন, ‘গুছিয়ে নিতে একটু সময় লেগেছে। ত্রুটি যে ছিল সেটা স্বীকার করছি। কিন্তু চিকিত্‍সক, কর্মী থেকে শুরু করে গোটা হাসপাতাল যেভাবে করোনা আক্রান্তদের বাঁচানোর কাজে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল এবং তার পরে সাফল্য সেটা প্রশংসার যোগ্য।’ তিনি আরও জানিয়েছেন, কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিত্‍সকদের জন্যই করোনা চিকিত্‍সার এটা একটা অন্যতম উত্‍কর্ষ কেন্দ্র হয়ে উঠেছে।’ সোমবার দুপুরে ফুল এবং মিষ্টি দিয়ে অভিনন্দন জানিয়ে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হবে।

কোভিড চিকিত্‍সার জন্য মেডিক্যাল কলেজকে ব্যবহার করা হবে বলে টুইট করে ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর গ্রিন ব্লক, সুপার স্পেশালিটি বিল্ডিংয়ের সমস্ত ফ্লোর নিয়ে শুরু হয় কর্মযজ্ঞ। হাজার বেডের ব্যবস্থা করা হয়। তবে শুরুতে পিপিই, মাস্ক, স্যানিটাইজার, সরঞ্জাম না পাওয়ার অভিযোগ তোলেন চিকিত্‍সা কর্মীরা। দফায় দফায় শুরু হয় বিক্ষোভ। চিকিত্‍সকদের একাংশও অব্যবস্থার অভিযোগে সরব হয়। রোগী নিখোঁজ হয়ে যাওয়ারও অভিযোগ উঠেছে। সেই মেডিক্যাল কলেজই আজ ঘুরে দাঁড়াল।” “

Related Articles

Back to top button
Close