fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

করোনা আক্রান্তের সাহায্যে বরো ভিত্তিক কল সেন্টার চালু করছে কলকাতা পুরসভা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পুরসভার ১৬টি বরোতেই চালু হচ্ছে করোনা কলসেন্টার। এই কল সেন্টারের দায়িত্বে থাকবেন করোনা জয়ীরা। সমস্যার গুরুত্ব বুঝে আক্রান্তের বাড়িতে উপস্থিত হবেন তাঁরা। রবিবার এমনটাই জানিয়েছেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য অতীন ঘোষ। পাশাপাশি প্রয়োজন হলে এই করোনা যোদ্ধারাই হাসপাতালে পৌঁছে দেবেন করোনা আক্রান্তদের।

কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ হাকিমের উদ্যোগে পুরসভার অধীনস্ত ১৬টি বোরোতে একটি করে কল সেন্টার চালু করা হবে। এই প্রতিটি সেন্টারেই তিনটি শিফটে ২৪ ঘণ্টা করে লোক থাকবে। এরা সকলেই করোনা জয়ী বিশেষ ভাবে প্রশিক্ষিত। এমনকী প্রাথমিক চিকিৎসা, অন-কলের ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে ওষুধ দেওয়া, ভর্তির ব্যবস্থা সবটাই করবেন তাঁরা। প্রয়োজন হলে এম্বুলেন্স জোগাড় করা না গেলে বাইক নিয়ে করোনা আক্রান্তদের হাসপাতালেও ভর্তি করে দেবেন তাঁরা।

আরও পড়ুন:কার্গিল দিবসে করোনা মোকাবিলায় দিল্লির সেনা হাসপাতালে অর্থ তুলে দিলেন রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ

করোনা জয়ী অল্প বয়স্ক যুবকদের এই কাজে লাগানো হবে বলেই পুর সূত্রে খবর। এদিকে যেহেতু এটা করোনা কে জয় করেছে তাই এদের দেহে এন্টিবডি তৈরি আছে বলে এরা আক্রান্তের সংস্পর্শে গেলেও সংক্রমনের সম্ভাবনা অনেক কম। পাশাপাশি যাদের এই কাজে নিয়োগ করা হবে তাঁদের প্রত্যেকেরই নিজস্ব বাইক থাকতে হবে। অন্যদিকে এই সকল করোনা জয়ীদের বিশেষ ভাবে প্রশিক্ষণ দেবে পুরসভা। একইসঙ্গে এরা মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মত ১৫ হাজার টাকা করে মাসিক সাম্মানিকও পাবেন।

করোনা সংক্রমণ নিয়ে সমাজে বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারনা ছড়াচ্ছে। যা নিয়ে আরও আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। পাড়ায় কেউ আক্রান্ত হলে তাঁর প্রতি দুর্ব্যবহার করছে প্রতিবেশীরা। এই সকল বিষয়ে রাশ টানতে ওই কোভিড যোদ্ধারাই শহরের করোনা আক্রান্ত সন্দেহভাজনদের প্রাথমিক চিকিৎসা ও কাউন্সিলিং করবেন। এছাড়াও করোনা সংক্রান্ত একাধিক অভিযোগ আসছে পুরসভার কাছে। সেই সমস্যার সমাধানও করা হবে এই ১৬টি কল সেন্টার থেকেই।

এই প্রসঙ্গে অতীন ঘোষ জানান, “বিশিষ্ট করোনা জয়ীদের দিয়ে কোভিড মোকাবিলায় সচেতনতামূলক প্রচার কর্মসূচি নেওয়া হবে। আর আর্থসামাজিকভাবে পিছিয়ে পড়া অন্য করোনা জয়ীদের কোভিড হাসপাতালে, সেফ হোম, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে করোনা মোকাবিলায় নানা কাজে নিয়োগ করা হবে।”

Related Articles

Back to top button
Close