fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কলকাতায় কন্টেইনমেন্ট জোন কমে দাঁড়াল ১টিতে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সর্ব সাকুল্যে এখন মাত্র একটি কন্টেইনমেন্ট জোন রয়েছে শহর কলকাতায়। তবে খূব শীঘ্রই সেটিও সংক্রমিত তালিকার বাইরে চলে যাবে। অর্থাৎ কলকাতা কন্টেইনমেন্ট জোন মুক্ত হবে, এমনই আশা কলকাতা পুরসভার। নতুন তালিকায় দেখা গেছে চার নম্বর বোরোর ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের ১৩ – ২১ উমেশ দত্ত লেন এখোন শুধুমাত্র কনটেইনমেণ্ট জোনের অধীনে। এখানকার মিক্সড এলাকায় সংক্রমণ রয়েছে।

আগস্ট মাসের শুরুতে শহরে কনটেইনমেণ্ট জোন ছিল ৩৯টি। সেখান থেকে কমতে কমতে এখন মাত্র একটি কন্টেইনমেন্ট জোন রয়েছে শহরে। এর আগে হটস্পটের তালিকায় ছিল বেলেঘাটা, বরিষা, আমহার্ট স্ট্রিট, চেতলা। তবে এই এলাকাগুলি এখন হটস্পটের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে।

জানা গিয়েছে, এই উমেশ দত্ত লেনে ৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। করোনা মহামারী যে তাহলে কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে এসেছে কলকাতায় তার ইঙ্গিত পুরসভা ঘোষিত কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা থেকেই মিলছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, উমেশ দত্ত লেন সংলগ্ন রমেশ দত্ত লেনের বস্তি এলাকা এবং পার্শ্ববর্তী লোহাপট্টি কনটেনমেন্ট জোনে ছিল। তবে ভয়াবহ বিষয় হল যে, হোম আইসোলেশনে থাকা পরিবারের সদস্যরা বিডন স্ট্রিট বা লোহাপট্টিতে লুকিয়ে থাকার চেষ্টা করেছিল। এলাকাটি মিনার্ভার কাছাকাছি, যা যথেষ্ট ব্যস্ত এলাকা। স্বাভাবিকভাবেই কনটেনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত না করলে করোনার সংক্রমণ ছড়ানোকে রোধ করা কঠিন হয়ে দাঁড়াতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ প্রশাসন।

কন্টেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা কমার পাশাপাশি কলকাতায় কমছে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা। বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার হার। বেশ কিছুদিন ধরে নতুন আক্রান্তের চেয়ে তুলনামূলক ভাবে বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে উঠছেন কলকাতায়। কিন্তু শনিবারের রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী সুস্থ হয়ে ওঠার চেয়ে আক্রান্তের সংখ্যাটা বেশি।

Related Articles

Back to top button
Close