fbpx
কলকাতাহেডলাইন

কলকাতার সবচেয়ে বয়স্ক করোনা রোগীও পুরোপুরি সুস্থ হলেন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনার হানায় সবচেয়ে বেশি আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছিল শহরের প্রবীণদের নিয়েই। তথ্য বলছে, করোনা সংক্রমণে যুবকেরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতায় তা কাটিয়ে উঠলেও প্রবীণরা প্রায়ই হার মানছেন। কিন্তু উত্তর কলকাতার বিডন স্ট্রিটের বাসিন্দা ৯৪ বছরের লালমোহন শেঠ এই তথ্যকে ভুল প্রমাণিত করে করোনাকে হারিয়ে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠলেন। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে।
স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য বলছে, করোনা সংক্রামিত হওয়া রোগীদের মধ্যে তিনিই এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বয়স্ক করোনা রোগী। বয়স অত্যধিক বেশি হওয়ায় তাকে নিয়েই সবচেয়ে বেশি চিন্তা ছিল চিকিৎসকদের। সব ওষুধ ঠিকমত কাজ করবে কি না, কোনও ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হবে কি না, এমনকি তার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা করোনাকে আটকাতে পারবে কি না, এমন হাজারো প্রশ্ন প্রায় প্রত্যেকদিনই চিন্তায় রাখত চিকিৎসকদের। কিন্তু চিকিৎসকদের সব ভয়-চিন্তা-টেনশন দূরে সরিয়ে ভয়ঙ্কর করোনাকে হারিয়ে নিজেকে করোনা নেগেটিভ প্রমাণিত করলেন। আর দেখিয়ে দিলেন, বয়সের অজুহাতে হার মানার কোনও প্রশ্নই নেই। কিন্তু কী ভাবে করোনা সংক্রামিত হলেন তিনি?  জানা গিয়েছে, বৃদ্ধের পরিবারের একজন করোনা রোগীর সংস্পর্শে এসেছিলেন। তারপর থেকেই বৃদ্ধের কিছু উপসর্গ দেখা যায়।  এরপরেই গত ১৩ জুন ওই বৃদ্ধকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের গ্রিন বিল্ডিংয়ে নিয়ে আসা হয়। তারপরই পরীক্ষা করে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তড়িঘড়ি বৃদ্ধকে পাঠানো হয় সুপার স্পেশালিটি কোভিড ব্লকে।
মেডিক্যাল কলেজের সুপার ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানিয়েছেন, মাত্র ১২ দিনেই করোনাকে পরাজিত করে তিনি এখন জেনারেল ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন। নিয়মমত আরও  কিছুদিন পর্যবেক্ষণে রেখে ছুটি দেওয়া হবে। এর আগে টালিগঞ্জের এমআর বাঙ্গুর হাসপাতালে ৯২ বছর বয়সী একজন করোনা আক্রান্ত ভর্তি হলেও যদিও তাঁকে বাচানো যায়নি। সেদিক দিয়ে অসাধ্যসাধন করতে পেরেছে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ।

Related Articles

Back to top button
Close