fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

একুশের লক্ষ্যে তৃণমূলের চমক অব্যাহত, রাজ্যস্তরের মুখপাত্র কুণাল, নুসরত

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: একুশের লক্ষ্যে দল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কয়েকদিন আগেই সাংগঠনিক রদবদল ঘটিয়ে চমক দিয়েছিলেন। সেই চমকের তালিকা অব্যাহত রইল। এবার কুণাল ঘোষ ও নুসরাত জাহান রুহির নামকে রাজ্য স্তরের মুখপাত্রের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হল। মঙ্গলবার সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জাতীয় ও রাজ্য স্তরের মুখপাত্র তালিকা প্রকাশ করা হয়। সেই সারিতেও একাধিক নতুন নামকে জায়গা করে দেওয়া হয়। যারা এতদিন দলের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে যুক্ত ছিলেন কিন্তু সামনের সারিতে আসার সুযোগ পাচ্ছিলেন না। মূলত তাদেরকে এবার সামনের সারিতে এনে ভাবমূর্তি স্বচ্ছ করতে উদ্যোগী হলেন মমতা।
এদিন কেন্দ্রের মুখপাত্র হিসেবে ১২ জনের নামের তালিকা প্রকাশ করে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস। যেখানে শশী পাঁজা, মণীশ গুপ্ত, অমিত মিত্র, সুগত বসু ও বিবেক গুপ্তার মত নতুন মুখকে সামনে নিয়ে আসা হয়। এছাড়াও ১২ জনের তালিকায় আছেন ডেরেক ও ব্রায়েন, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, নাদিমুল হক, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, দীনেশ ত্রিবেদী, সৌগত রয়, ও শুখেন্দু শেখর রায় প্রমূখ। সেই সঙ্গে রাজ্যস্তরের মুখপাত্রের তালিকায় কুণাল ঘোষ ও নুসরত জাহান রুহির পাশাপাশি আরও ২২ জনের নাম প্রকাশ করা হয়। রাজ্য স্তরের অন্যান্য মুখপাত্ররা হলেন, অরূপ চক্রবর্তী, বিজয় উপাধ্যায়, বিশ্বজিৎ দেব, ব্রাত্য বসু, সমীর চক্রবর্তী, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, দেবাংশু ভট্টাচার্য, দিনেশ বাজাজ, দেবু টুডু, নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়, নির্বেদ রায়, ওম প্রকাশ মিশ্রা, পার্থ ভৌমিক, রাজিব ব্যানার্জি, শান্তনু সেন, শীলভদ্র দত্ত, সুব্রত মুখার্জি, সুদীপ রাহা, তাপস রায়, ও সুপ্রিয় চন্দ প্রমুখ।
 উল্লেখ্য, তফসি আয় তৃণমূল ভবনে দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক ডেকে ২০১৩ সালে জুলাই মাসেই ছয় বছরের জন্য সাসপেন্ড করে ছিলেন কুণাল ঘোষকে। সে সময় তিনি সাংসদ ছিলেন তৃণমূলের। দীর্ঘ সাত বছর পর আবারও আনুষ্ঠানিকভাবে কুনাল ঘোষের প্রত্যাবর্তন হল। দলের সঙ্গে যোগাযোগ ক্রমেই বাড়ছিল কুনালের। এবার দলে আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব পেলেন তিনি। সাসপেনশন ওঠার পর থেকে দলের নানা কর্মসূচিতে এক বছর আগে থেকেই থাকছিলেন। ২০১৯ থেকে দলের সঙ্গে নতুন করে যোগাযোগ তৈরি হয়। ওই বছরই ২১ জুলাইয়ের শহিদ স্মরণ সমাবেশ কর্মসূচিতেও ছিলেন। শ্যামবাজারে যুব তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটা কর্মসূচিতেও ছিলেন কুণাল।
তরুণ নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর এবার রাজ্যস্তরের মুখপাত্রও হলেন। তবে কুণালের পাশাপাশি উল্লেখ্যযোগ্য অন্তর্ভুক্তি হল অভিনেত্রী-সাংসদ নুসরত জাহানের। বিভিন্ন কারণে লোকসভা ভোটের পর থেকেই সবসময় শিরোনামে থেকেছেন তিনি। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের কার্যকলাপ, উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরা, বিরোধীদের পালটা জবাব দেওয়ায় সর্বদা সক্রিয় থেকেছেন নুসরত। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, তারই পুরস্কার হিসাবে তাঁর নাম মুখপাত্রের তালিকায় অন্তর্ভুক্তি হল।
সাংগঠনিক রদ বদলে বহু হেভিওয়েট নেতার ডানা ছাঁটার পাশাপাশি নতুন মুখকে রাজ্য কোর কমিটি ও রাজ্য কমিটিতে এনেছিলেন মমতা। তার জলজ্যান্ত উদাহরণ রাজ্য কমিটিতে প্রবেশ প্রাক্তন মাও নেতা ছত্রধর মাহাতো এবং সম্পাদক পদে সিপিএম বহিষ্কৃত  নেতা ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই রীতিকে অব্যাহত রেখেই এবার জাতীয় ও রাজ্যস্তরের মুখপাত্র মণ্ডলীতেও নতুন মুখ আনল তৃণমূল।

Related Articles

Back to top button
Close