fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

৩০ সেপ্টেম্বর বাবরি মামলার রায় ঘোষণা, উপস্থিত থাকার নির্দেশ লাল কৃষ্ণ আডবাণী, যোশী, ভারতীকে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দীর্ঘ ২৯ বছরের অবসান। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর বহু প্রতীক্ষিত বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলা রায় ঘোষণা হতে চলেছে। এই ঘটনায় ৩২ জন সহ প্রাক্তন উপ প্রধানমন্ত্রী লাল কৃষ্ণ আডবাণী, বিজেপির বর্ষীয়ান রাজনৈতিক নেতা মুরলী মনোহর যোশি, উমা ভারতী, উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং, বিনয় কাটিয়ারকে আদালতে উপস্থিত থাকার নির্দেশ হয়ে হয়েছে।

সিবিআইয়ের আইনজীবী ললিত সিং জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা ও রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক ১ সেপ্টেম্বর শেষ হয়েছিল এবং তারপরে বিশেষ বিচারপতি রায় লেখা শুরু করেন। সিবিআই আদালতে ৩৫১ জন সাক্ষী এবং প্রায় ৬০০ টি প্রামাণ্য দলিল প্রমাণ হাজির করেছে।
উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর কয়েক হাজার করসেবক অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলে। এই ঘটনায় লালকৃষ্ণ আডবাণী, মুরলী মনোহর যোশী, উমা ভারতী, কল্যাণ সিং-এর মতো নেতাদের নাম সামনে আসে। যদিও এই অভিযোগের কোনও নিশ্চিত প্রমাণ নেই এখনও পর্যন্ত। এরপর এই নিয়ে বিভিন্ন মামলা হয়। অবশেষে প্রায় ২৯ বছর বাদে সেই মামলারই রায় দেওয়ার পথে বিশেষ এই আদালত।

আরও পড়ুন: করোনা যোদ্ধাদের স্বাস্থ্যবিমার মেয়াদ আরও ছ’মাস বাড়াল কেন্দ্র

রাম জন্মভূমি আন্দোলনের অগ্রভাগে ছিলেন লাল কৃষ্ণ আডবাণী ও মুরলী মনোহর যোশী। এই কাঠামোটি ভেঙে দেওয়ার পর কর সেবকদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল। আডবাণী, যোশী ছাড়াও বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি) নেতা অশোক সিংহল, সাধ্বী রীতমবরা, এবং বিষ্ণু হরি ডালমিয়াসহ অন্যদের বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়েছিল।

লাল কৃষ্ণ আডবাণী গত ২৪ জুলাই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিশেষ সিবিআই আদালতে জানিয়েছিলেন, যে তাকে মিথ্যাভাবে এই মামলায় জড়ানো হয়েছে। একইভাবে, কল্যাণ সিংহের গত ১৩ জুলাই, উমা ভারতীর ২ জুলাই এবং মুরলি মনোহর যোশীকে এই বছরের ২৩ জুলাই আদালতে তাদের বক্তব্যে সাপেক্ষে যুক্তি রাখেন।

Related Articles

Back to top button
Close