fbpx
অন্যান্যদেশহেডলাইন

আসামি নয় এবার করোনা ধরবে ফেলুদা…

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ফেলুদা…ফেলুদা মানেই আমরা জানি সেই গোয়েন্দা চরিত্র। যিনি কিনা চোখের নিমিষে আসামিকে ধরে ফেলতে সক্ষম। তবে এবার ফেলুদা শুধু আসামি নয়, এবার ধরবে করোনাও! হ্যাঁ শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। তবে এই ফেলুদা কোনও রক্ত মাংসের মানুষ নন…এই ফেলুদা হল একটি কিট।

এই করোনা আবহে করোনা কিট করে আবিষ্কার করে সাড়া ফেলে দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার (ডিসিজিআই) অনুমোদনও পেয়ে গেল তাঁদের তৈরি ‘ফেলুদা’।করোনা পরীক্ষায় এবার দুই বাঙালি বিজ্ঞানীর তৈরি টেস্ট কিট বাজারে আনার অনুমতি পেল টাটা গোষ্ঠী৷ যে দুই বাঙালি বিজ্ঞানী এই টেস্ট কিট তৈরি করেছেন তাঁদের নাম শৌভিক মাইতি এবং দেবজ্যোতি চক্রবর্তী৷ সত্যজিৎ রায়ের সৃষ্টি করা বিখ্যাত গোয়েন্দা চরিত্র ফেলুদার নামে এই টেস্ট কিটের নামকরণ করেছেন এই দুই বাঙালি বিজ্ঞানী৷

 আরও পড়ুন: প্রতীক্ষার অবসান, দীর্ঘ ছ’মাস মাস পর দেশের ১২টি রাজ্যে আংশিকভাবে খুলল স্কুল

জানা গিয়েছে, শনিবার কাউন্সিল অফ সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ (সিএসআইআর) জানিয়েছে, দেশীয় প্রযুক্তিতে করোনা পরীক্ষার কিট বাণিজ্যিকভাবে আত্মপ্রকাশের ছাড়পত্র পেয়েছে। যা ভারতের প্রথম ক্লাস্টার্ড রেগুলারলি ইন্টারস্পেসড শর্ট প্যালিনড্রোমিক রিপিট করোনাভাইরাস পরীক্ষা (সিআরআইএসপিআর)। সেই প্রযুক্তি যৌথভাবে তৈরি করেছে টাটা গ্রুপ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের অধীনস্থ ইনস্টিটিউট অব জেনোমিক্স অ্যান্ড ইন্টিগ্রেটিভ বায়োলজি। একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ভবিষ্যতে অন্যান্য পরীক্ষার ক্ষেত্রেও এই CRISPR প্রযুক্তি ব্যবহার করা যাবে৷ গোটা দেশে যাতে সহজে এবং কম খরচে করোনা পরীক্ষা করানো যায়, তার জন্য CSIR-IGIB এবং ICMR-এর সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করেছে টাটা গোষ্ঠী৷ সম্পূর্ণ ভারতে তৈরি এই টেস্ট কিট নিরাপদ, নির্ভরযোগ্য, সস্তা এবং সহজে পাওয়া সম্ভব হবে৷’

Related Articles

Back to top button
Close