fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গোষ্ঠী কোন্দলের জের, শাসকদল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ ২৫০টি পরিবারের 

দীপঙ্কর দে, ইসলামপুর: পুরভোট না আসতেই ইসলামপুর পুরসভা এলাকায় গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসে ভাঙন। ইসলামপুর পুরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের গতবারের তৃণমূল প্রার্থী পাপিয়া দাসের স্বামী তথা তৃণমুল নেতা নীলকমল দাস ও বিবেক দাস বিজেপিতে যোগদান করলেন। এই ঘটনায় ইসলামপুর শহরজুড়ে রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

সোমবার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের শান্তিনগর এলাকায় বিজেপির এক যোগদান সভায় নীলকমল দাস ও বিবেক দাস স্থানীয় আড়াই শত পরিবার নিয়ে ইসলামপুর টাউন যুব মোর্চার সভাপতি জয় দত্ত, বিজেপি নেতা চন্দন শেঠ, কিষান মোর্চার জেলা সভাপতি নিতু গোপাল সরকার ও গতবারের পুরভোটের বিজেপি প্রার্থী পিঙ্কি সরকারের উপস্থিতিতে দলে যোগদান করেন। ওই ওয়ার্ডে বিগত দিনগুলিতে অধিকাংশ সময়ই নীলকমল দাসকেই তৃণমূলের প্রতিনিধিত্ব করতে দেখা গিয়েছিল। নীলকমল দাস ইসলামপুর পুরসভার প্রশাসক তথা উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়ালের খুব ঘনিষ্ঠ হিসাবে পরিচিত ছিলেন।

এই সময় নীলকমল দাসের বিরোধী শিবিরে যোগদান ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে শাসকদলকে অনেকটাই বেকায়দায় ফেলবে বলে মত রাজনৈতিক মহলের। দলত্যাগী তৃনমুল নেতা নীলকমল দাস বলেন,  দীর্ঘদিন ধরে মানুষের জন্য মানুষের পাশে থেকে সেবা দিয়ে আসছি। কিন্তু কিছুদিন যাবৎ তৃনমুলে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারনে কাজ করতে অসুবিধা হওয়ার জন্য আমি তৃণমূল ছাড়তে বাধ্য হলাম। অন্যদিকে গোষ্ঠীদ্বন্দের কথা স্বীকার করে নিয়ে ইসলামপুর টাউন তৃনমুল সভাপতি মানিক দত্ত বলেন, দুপক্ষের সাথে আলোচনার জন্য বসার কথা ছিল কিন্তু আমার দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার কারনে বসা হয়নি। তবে কেউ চলে যেতে চাইলে তাঁকে ধরে রাখা যায় না। এদিকে বিজেপির ইসলামপুর টাউন যুব মোর্চার সভাপতি জয় দত্ত বলেন, নীলকমলবাবু আজকে আড়াইশ পরিবার নিয়ে দলে যোগদান করেছেন। এরকম অনেকেই বিজেপির দিকে পা বাড়িয়ে রয়েছেন। আগামীদিনে তাঁরাও দলে যোগদান করবেন। আসলে তৃনমুলে সম্মানের সাথে স্বচ্ছতা নিয়ে কেউই মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারবে না তাই বিজেপিতে যোগদান করছে।

Related Articles

Back to top button
Close