fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

দারাউসের ঝুলন্ত উদ্যানে আজ মৃত বৃক্ষেরা, ব্যর্থতার দ্বারপ্রান্তে লেবানন, ইস্তফা হিট্টির

বেইরুট, (সংবাদ সংস্থা): ‘দেশের অর্থনৈতিক সংকট ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে সরকার অদক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে, কোনো ধরনের সংস্কার নেই।’ এর অভিযোগ এনে পদত্যাগ করেছেন লেবাননের বিদেশ মন্ত্রী নাসিফ হিট্টি। প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াবের সঙ্গে দেখা করে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দেন বিদেশ মন্ত্রী। এই পদত্যাগপত্রে তিনি উল্লেখ করেন -‘লেবানন ব্যর্থ রাষ্ট্র হওয়ার দ্বারপ্রান্তে’।

একদা আরব লিগে লেবাননের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করা নাসেফ
হিট্টি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক সংকট ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে সরকার অদক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে, কোনো ধরনের সংস্কার নেই। সূত্রের খবর, হিট্টির পদত্যাগপত্র সরকার গ্রহণ করেছে। তার স্থলে চার্বেল ওয়েহিবিকে নতুন বিদেশ মন্ত্রী করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, গত জানুয়ারি মাসে হাসান দিয়াব প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার সময় থেকে নাসিফ হিট্টি লেবাননের বিদেশ মন্ত্রী হিসেবে কাজ করে আসছিলেন।

 

পদত্যাগপত্রে হিট্টি লেখেন– ‘লেবানন এখন আর সেই লেবানন নেই, যাকে আমরা ভালোবেসেছিলাম। একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ লেবাননের স্বপ্ন দেখেছিলাম। কিন্তু দিন দিন এটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে। সরকারের দূরদৃষ্টির অভাবে দেশটি এ সংকট কাটিয়ে উঠতে পারছে না’ বলেও মত হিট্টির। নাসিফ হিট্টি পদত্যাগের পর এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এই সরকারে আমি যোগ দিয়েছিলাম একজন নেতার নেতৃত্বে পরিচালিত লেবাননের জন্য কাজ করতে। কিন্তু আমি দেখলাম আমার দেশে অনেক নেতা এবং এখানে চরম স্বার্থসংঘাত। যদি তারা লেবাননের জনগণকে উদ্ধারের জন্য ঐক্যবদ্ধ না হন, তা হলে আল্লাহ মাফ করুন, সবাইকে নিয়ে জাহাজ ডুবে যাবে।’

লেবাননের আর্থিক সংকটের কারণে সরকার আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল বা আইএমএফের দ্বারস্থ হয়েছে; কিন্তু এ সংস্থা যেসব শর্ত দিয়েছে তা মেনে কাজ করতে খুব একটা আগ্রহী নয় লেবাননের বর্তমান সরকার। বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি হিট্টি। বিবৃতিতে তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘কাঠামোগত ও পূর্ণাঙ্গ সংস্কার অর্জন যার জন্য আমাদের সমাজ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় বারবার আহ্বান জানাচ্ছে তা বাস্তবায়নে সরকারের ভিতরে কার্যকর ইচ্ছার অনুপস্থিতির কারণে আমি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

Related Articles

Back to top button
Close