fbpx
দেশহেডলাইন

করোনার ভ্যাকসিন সংগ্রহ ও সরবরাহ নিয়ে স্পষ্ট পরিকল্পনা করুক কেন্দ্র, কটাক্ষ রাহুলের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা দেশ করোনার ভ্যাকসিনের অপেক্ষায়। কিন্তু ভ্যাকসিন এলেই যে সঙ্গে সঙ্গে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে, সেটা ভেবে নেওয়ার কোনও কারণ নেই। কারণ, ভারত সরকার এখনও ভ্যাকসিন কীভাবে বণ্টন করা হবে, তার কোনও সুস্পষ্ট নীতি তৈরি করতে পারেনি। ফলে প্রত্যেক ভারতীয়র কাছে ভ্যাকসিন কবে, কীভাবে পৌঁছাবে, তার কোনও ঠিক-ঠিকানা এখনও নেই। তবে করোনার ভ্যাকসিন সংগ্রহ ও তার সরবরাহ নিয়ে কেন্দ্রের একটি সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করা উচিত বলে মনে করেন রাহুল। এখনই এবিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের স্পষ্ট একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত বলে মনে করেন রাহুল গান্ধী।

করোনার ভ্যাকসিন তৈরির কাজে বিশ্বের একাধিক দেশের সঙ্গেই জোরদার তত্‍পরতার সঙ্গে এগোচ্ছে ভারতও। শীঘ্রই করোনার ভ্যাকসিন উত্‍পাদনকারী দেশগুলির মধ্যে অন্যতম হবে ভারত, এমনই মনে করেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। ইতিমধ্যেই দেশের দুটি ওষুধ সংস্থা করোনার ভ্যাকসিন তৈরির কাজে অনেকটাই এগিয়েছে। হায়দরাবাদের ওষুধ সংস্থা ভারত বায়োটেক ও গুজরাতের সংসথা জাইডাস ক্যাডিলা করোনার প্রতিষেধক বানাচ্ছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি টিকা প্রস্তুতকারকদের মধ্যে ভারতের নাম উপরের সারিতে। স্বাভাবিকভাবেই উপযোগী করোনার টিকা বাজারে এলে ভারতীয় সংস্থাগুলিই তার বেশিরভাগটা উত্‍পাদন করবে। কিন্তু ভ্যাকসিন কীভাবে বণ্টন হবে, তা এখনই ঠিক করে ফেলা দরকার বলে মনে করছেন রাহুল গান্ধী। শুক্রবার এক টুইটে তিনি বললেন, ‘‌ভারত করোনার টিকার সর্বাধিক উত্‍পাদক দেশগুলির মধ্যে একটি হতে চলেছে। তাই সুনির্দিষ্ট, সুপরিকল্পিত এবং ন্যায়সঙ্গত ভ্যাকসিন বিন্যাস পদ্ধতি অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। যাতে এই টিকার সুপ্রতুলতা, কম খরচ এবং সুষম বণ্টন নিশ্চিত করা যায়। ভারত সরকারের উচিত এখনই সেই লক্ষ্যে পদক্ষেপ করা।’‌

আরও পড়ুন: কাশ্মীর পরিস্থিতির বিরোধী, সক্রিয় মানবাধিকার কর্মী, ভারতের জন্য কেমন হবেন কমলা? নজর রাখছে দিল্লি

বস্তুত করোনা পরিস্থিতিতে শুরু থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় রাহুল। সেই ফেব্রুয়ারি মাসে, এই ভাইরাসের ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে সতর্ক করেছিলেন তিনি। যদিও সরকার তাতে কান দেয়নি। ফল এখন ভুগতে হচ্ছে হাতেনাতে। এবার ভ্যাকসিনের বণ্টন নিয়েও সতর্ক করছেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি। এক্ষেত্রে অবশ্য সরকার আগে থেকেই সতর্ক। ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিনের সুষম বণ্টন নিশ্চিত করতে একটি কমিটি গড়েছে কেন্দ্র। সেই কমিটির একটি বৈঠকও হয়ে গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close