fbpx
অন্যান্যলাইফস্টাইলহেডলাইন

পুজোর আগে এক মাসে ডায়েট করে কমান ১০ কেজি, কীভাবে?

দোয়েল দত্ত: ওজন কমানোর ব্যপার যখন আসে বিশেষ করে পুজোর আগে তখন মাস খানেক আগে থেকেই আমরা এক্সারসাইজ আর প্রচুর ডায়েটের মধ্যে ঢুকে যাই। যাতে এই পুজোর ওই ৫টা দিন আমরাই হয়ে উঠতে পারি সেরার সেরা। কিন্তু ওজন কমানো তো কম হ্যাপার নয়। তার জন্য মেনে চলতে হবে ঠিকঠাক ডায়েট। নিচে তারই একটা উদাহরণ দেওয়া হল।

সকালে ডিটক্স ডায়েট:

১) গ্লাস উষ্ণ গরম জলে পাতি লেবুর রস ও মধু দিয়ে খেলে কিংবা এক চা চামচ আদাবাটা দিয়ে খেলে ওজন কমবে।
২) ডিটক্স ডায়েট হিসেবে শসাও খুব জনপ্রিয়। কয়েক কুচি শসা, পুদিনা পাতা, আধ ইঞ্চি আদা, খানিকটা বিটনুন এক গ্লাস জলের মধ্যে খান। কয়েকদিনের মধ্যে ফারাকটা দেখুন।
৩) অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার খেতে পারেন। এক চামচ এক গ্লাস জলে মিশিয়ে বডি ডিটক্সিফাই হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ওজনও কমবে।

ব্রেকফাস্ট:

১) ফাইবারে সমৃদ্ধ ওটমিল, সবচেয়ে ভালো অপশন। চিনি দেবেন না। এতে রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকবে ও কোলেস্টেরলও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।
২) রোজ ওটস খেতে ভালো না লাগলে দুধ দিয়ে মুসলি খেতে পারেন।
৩) বিকল্প অপশন হিসেবে রয়েছে ওটস-এর উপমা, চিল্লা, প্যানকেক।
৪) অ্যান্টি অক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ গ্রিন টি রাখুন ব্রেকফাস্টে। যা মেটাবলিজম প্রক্রিয়া দ্রুত করে।

মিড মর্নিং স্ন্যাক্স

কোনও একটা ফল অথবা আমন্ড দিয়ে অ্যাপেল স্মুদি ওজন কমানোর জন্য সহায়ক।

লাঞ্চ ও ডিনার

এক্ষেত্রে ফাইবার, প্রোটিন, ভিটামিন, মিনারেলস সমস্ত পুষ্টি উপাদান যাতে থাকে সেভাবেই ডায়েট তালিকা করতে হবে। এক থেকে দেড় কাপ চালের ভাত, দুটো হাতে গড়া রুটি, এক বাটি ডাল, এক বাটি তরকারি এবং এক পিস মাছ বা চিকেন। তবে খুব বেশি স্পাইসি করবেন না। বয়েলড ভেজিটেবল, ব্রাউন রাইস এবং গ্রিলড ফিশ খেতে পারলে খুব ভালো।

ইভনিং স্ন্যাক্স

বিকেলে এক মুঠো বাদাম, স্প্রাউটস, মুড়ি, ডাবের জল, তিসির বীজ, এগ হোয়াইট কয়েকটা, কিংবা খুব খিদে পেলে ব্রাউন ব্রেড স্যান্ডুইচ গ্রিল করে খান।

সবশেষে মনে রাখবেন খাওয়ার আগে একগ্লাস জল খেয়ে নিলে পেট ভর্তি থাকে। ইম্পালসিভ ইটিং-এর সমস্যা হয় না, যা ওজন বাড়ার মূল কারণ।

Related Articles

Back to top button
Close