fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লাইসেন্স বাজেয়াপ্তের ইঙ্গিত,অগ্রিমে জারি নিষেধাজ্ঞা, ডিসানকে তীব্র ভর্ৎসনা স্বাস্থ্য কমিশনের

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: ডিসান হাসপাতালের দর কষাকষির কারণেই বাইরে অ্যাম্বুল্যান্সে পড়ে থেকে মৃত্যু হয়েছিল পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের বাসিন্দা লায়লা বিবির, এমনটাই ছিল পরিবারের অভিযোগ। পরিবারের এই অভিযোগকে মান্যতা দিয়ে কিছুদিন আগেই স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে স্বাস্থ্য কমিশন। সেই মামলার এখনও নিষ্পত্তি না হলেও প্রথম শুনানিতেই তা নিয়ে একাধিক নির্দেশনা দিয়ে ডিসান হাসপাতালকে ভর্ৎসনা করল স্বাস্থ্য কমিশন।

মামলার শুরুতেই ডিসান হাসপাতালকে ১০ লক্ষ টাকা জমা রাখার নির্দেশ দেয় স্বাস্থ্য কমিশন। সেই সঙ্গে কমিশন জানিয়েছে, মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত রোগীদের থেকে কোনও অগ্রিম নিতে পারবে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিন মামলার শুনানিতে কমিশনের চেয়ারম্যান অসীমকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই গুরুতর অভিযোগে আগেই হাসপাতালের লাইসেন্স সাসপেন্ড হওয়া উচিত ছিল। কিন্তু অনেক রোগী চিকিৎসাধীন, তাই সাসপেন্ড করা হল না। তবে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কোনও রোগীর কাছ থেকে অগ্রিম নিতে পারবে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত, স্বামীর মৃত্যুর পর লায়লা বিবি নামে ওই রোগী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পার্ক সার্কাসের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হলে জানা যায়, তিনি আক্রান্ত। কিন্তু করোনা রোগীদের জন্য কোনও ব্যবস্থা ছিল না ওই হাসপাতালে। সেই কারণেই রোগীকে অন্যত্র স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। সেই মতো আগে থেকে ফোন করে বেড বুক করে ওই করোনা আক্রান্তকে কলকাতার ডিসান হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

পরিবারের অভিযোগ, ভর্তির জন্য হাসপাতালের তরফে ৩ লক্ষ টাকা দাবি করা হয়। কিন্তু, সেই মুহূর্তে পুরো টাকা ছিল না তাঁদের কাছে। শেষে ২ লক্ষ ৮০ টাকা জমা তারা দিয়েছিলেন। কিন্তু মাত্র ২০ হাজার টাকা কম থাকায় হাসপাতাল ভর্তি নেয়নি। অবশেষে অ্যাম্বুল্যান্সেই মৃত্যু হয় ওই বৃদ্ধার। এরপরই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন রোগীর পরিজনরা। তারা আনন্দপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সেই ঘটনাতেই ডিসান হাসপাতালের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করে স্বাস্থ্য কমিশন। বুধবার ছিল স্বাস্থ্য কমিশনে এই মামলার প্রথম শুনানি। সেখানেই ওই হাসপাতালকে তীব্র ভাষায় ভর্ৎসনা করে এই মন্তব্য করেন কমিশনের চেয়ারম্যান অসীম কুমার বন্দ্যোপাধ্যায়।

Related Articles

Back to top button
Close