fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ভোটে গণ্ডগোল রুখবে ‘বজ্র’ কামান, ভাঙড়ের স্পর্শকাতর এলাকায় প্রদর্শনী 

ফিরোজ আহমেদ, ভাঙড়: গোষ্ঠী সংঘর্ষ, বোমাবাজি, গুলিবর্ষণের ঘটনা দক্ষিণ ২৪ পরগানায় নিরন্তর। তার উপর দুয়ারে বিধানসভা নির্বাচন। রাজনৈতিক সংঘর্ষের পারদ ইতিমধ্যে চড়তে শুরু করেছে। এবার ভোটে গণ্ডগোল রুখতে ‘বজ্র’ কামান নিয়ে আগেভাগেই প্রস্তুত বারুইপুর জেলা পুলিশ। ‘বজ্র’ কামান নিয়ে ভাঙড়, ক‍্যানিং এর স্পর্শকাতর এলাকায় প্রদর্শিত করা হয়েছে।

বারুইপুর জেলা পুলিশের আওতায় এতদিন এই ধরনের আধুনিক কামান ছিল না। এই বিশেষ ধরনের কামানের মধ্যে একদিকে যেমন জলকামানের ব্যবস্থা থাকছে তেমনি অন্যদিকে মেশিনগানের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বিশেষ করে এই কামানগুলো দাঙ্গা প্রতিরোধে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। নতুন এই কামানে থাকছে বেশকিছু আধুনিক ব্যবস্থা। সাধারণ ছোটখাটো মানের বোমা বা গুলি এই কামানকে কোনরকম ক্ষতি করতে পারবেনা। অথচ কামান থেকেই একনাগাড়ে শত্রুপক্ষের উদ্দেশ্যে গুলি করা সম্ভব। শুধু তাই নয় ভিড়ের মধ্যে থেকে জলকামান হিসেবে থেকে ছত্রভঙ্গ করতে যথেষ্ট পারদর্শী এই বজ্র।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর জেলার বিভিন্ন অংশে বিশেষ করে যে সমস্ত এলাকাগুলিতে গণ্ডগোল ও মারামারি লেগেই থাকে সেই এলাকাগুলিতে এই অত্যাধুনিক মানের বজ্র কামন প্রদর্শিত করা হচ্ছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানা গিয়েছে। শনিবার ভাঙড়ের একদা অশান্ত পাওয়ার গ্রিড এলাকায় এই কামান নিয়ে রোডমার্চ করে কাশীপুর থানার ওসি প্রদীপ পালের নেতৃত্বে পুলিশের বিশেষ দল। এর পাশাপাশি রবিবার ভাঙড় থানার ওসি সমরেশ ঘোষের নেতৃত্বে ভাঙড়ের বিভিন্ন যায়গায় বজ্র কামান নিয়ে রোডমার্চ তথা প্রদর্শনী করা হয়।

বারুইপুর জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে জানা গিয়েছে, কোনও বড়সড় ঘটনা ঘটলে জেলার প্রতিটি থানাতে এই কামান পৌঁছে যাবে ঘটনা ঘটার কয়েক মুহুর্তের মধ্যে। আগে কলকাতা পুলিশের থেকে অথবা বিধান নগর কমিশনার থেকে এই কামান এনে অবস্থার নিয়ন্ত্রণ করতে হত। এবার বারুইপুর জেলা পুলিশের হাতেই চলে এলো এই অত্যাধুনিক কামান। সামনেই ভোট পর্বে অশান্তি রুখতে এই কামান বিশেষ সক্ষম হবে বলে আশাবাদী পুলিশ আধিকারিকরা।

Related Articles

Back to top button
Close