fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

স্পেশ্যাল ট্রেনে সাধারণ যাত্রীর সফরে বাধা দেওয়ায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিল লিলুয়া

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: স্পেশ্যাল ট্রেনে সাধারণ যাত্রীর সফরে বাধা দেওয়ায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিল লিলুয়া। স্টেশনে ব্যাপক ভাঙচুর চালাল ক্ষুব্ধ যাত্রীরা। অন্যদিকে, চুঁচুঁড়ায় রেল লাইন অবরোধ করেন নিত্যযাত্রীরা। রেলের স্টাফ ট্রেনে উঠতে না দেওয়াকে কেন্দ্র করে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল হাওড়ার লিলুয়া স্টেশন। সোমবার সকাল সাড়ে সাত টা নাগাদ একদল যাত্রী লিলুয়া স্টেশনের এক ও চার নম্বর প্লাটফর্মে দাড়িয়ে থাকা ট্রেনে উঠতে গেলে বাধা দেয় আরপিএফ এবং জিআরপি। এরপরেই দুপক্ষের মধ্যে বচসা ও হাতাহাতি হয়। ব্যাপক ভাঙচুর করে স্টেশন ম্যানেজারের ঘর। এক ঘন্টা ধরে অশান্তি হয়। পরে রেল পুলিশের বিশাল বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

করোনা সংক্রমণ রুখতে চলতি বছরের মার্চে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল গণপরিবহণ। পরবর্তীতে বাস, মেট্রো চললেও ট্রেন এখনও বন্ধ। শুধুমাত্র কয়েকটি স্পেশ্যাল ট্রেন চালানো হচ্ছে যেগুলিতে সাধারণ যাত্রীদের সফর নিষিদ্ধ। ফলে অফিস পৌঁছতে নাজেহাল পরিস্থিতি হচ্ছে আমজনতার। ফলে কেউ কেউ নিয়মের তোয়াক্কা না করেই উঠে পড়ছেন স্পেশ্যাল ট্রেনে। এই খবর ছিল রেলের কাছে। সেই কারণেই সোমবার সকালে লিলুয়া স্টেশনে হাওড়াগামী একটি ট্রেনে চেকিং চালানো হয়। তখন বহু যাত্রী ধরা পড়ে যান। ট্রেন থেকে তাঁদের নামিয়ে ফাইন করা হয়। এতেই রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় লিলুয়া স্টেশন। তুমুল অশান্তি শুরু করে ক্ষুব্ধ যাত্রীরা। চলে বচসা। অভিযোগ, যাত্রীরা হামলা চালায় স্টেশনের অফিসে। ভাঙচুর করা হয় সেখানে থাকা অধিকাংশ সামগ্রী।

আরও পড়ুন: ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, বাংলাদেশের মন্ত্রিসভায় নতুন আইন অনুমোদন

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশবাহিনী। নামানো হয় ব়্যাফ। পুলিশ ও র়্যাফ ময়দানে নামতেই ছত্রভঙ্গ হয়ে শুরু করে ক্ষুব্ধ যাত্রীরা। দীর্ঘক্ষণ পর আয়ত্তে আসে পরিস্থিতি। অন্যদিকে, স্পেশ্যাল ট্রেনে যাত্রার অনুমতির দাবিতে এদিন চুঁচুঁড়া স্টেশনে বিক্ষোভ দেখান বহু যাত্রী। রেল লাইন আটকে চলে বিক্ষোভ। উল্লেখ্য, স্পেশ্যাল ট্রেনে ওঠার দাবিতে রবিবার সরগরম হয়ে উঠেছিল হুগলির  তিনটি স্টেশন। চল বিক্ষোভ, অবরোধ। রেলপুলিশের বিরুদ্ধে উঠেছে বিক্ষোভকারীদের মারধরের অভিযোগও।

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close