fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি-ফেসবুকের যোগসাজস নিয়ে প্রশ্ন ডেরেকের, চিঠি লিখলেন জুকারবার্গকে

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: বিজেপির সঙ্গে যোগসাজসের আভিযোগে ফেসবুক কর্তাকে চিঠি দিলেন ডেরেক ও ব্রায়েন। বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূলের আইটি সেল এর পক্ষ থেকে সেই চিঠির প্রতিলিপি প্রকাশ করা হয়। করোনা আবহে সোশ্যাল ডিসটেন্স মেনে ফেসবুকই একমাত্র মাধ্যম যা এই মুহূর্তে কোটি কোটি মানুষের কাছে পৌঁছে গিয়েছে। আর সেই মাধ্যমকে হাতিয়ার করেই এবার বিজেপি ব্যাপক প্রচার চালাচ্ছে। ফলে পিছিয়ে যাচ্ছে অন্যান্য রাজনৈতিক দল। এরাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ও তার অন্যতম। তাই এবার বিজেপির বিজয়রথ থামাতে সরাসরি জুকারবার্গ কে চিঠি লিখলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন।

বর্তমানে ফেসবুক এদেশে বিজেপির অবাধ ব্যবহারের প্ল্যাটফর্ম এ পরিণত হয়েছে। বুধবার এই মর্মেই ফেসবুক কর্তা মার্ক জুকারবার্গ কে চিঠি দিলেন তৃণমূলের লোক সভার সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। ওই চিঠিতে বিজেপির সঙ্গে ফেসবুকের যোগ সাজশ আছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

করোনা আবহে শারীরিক ভাবে জন সংযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না কোনোও রাজনৈতিক দলের পক্ষেই। সেই কারণেই সামাজিক মাধ্যমকে বেছে নিয়েছে তাঁরা। তবে সুযোগকে কাজে লাগিয়েই বিজেপি ও ফেসবুকের মধ্যে যোগ সাজোশ তৈরি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। চিঠিতে ডেরেক লেখেন, “এই পদক্ষেপ বিজেপি এবং ফেসবুকের ঘনিষ্ঠতাকেই প্রমাণ করে।ফেসবুকের বহু বরিষ্ঠ কর্মীর কথাবার্তা সামনে এসেছে, এখন গণপরিসরেই বহু প্রমাণ রয়েছে, যা থেকে বিজেপি ও ফেসবুকের গাঁটছড়া রয়েছে।”

গত দুই বারের লোকসভা নির্বাচনের সময় পার্লামেন্টে ফেসবুকের ভূমিকা নিয়ে করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। তাঁদের ওই আলোচনাই বিরোধী দল গুলিকে সরব হওয়ার প্রেরণা জুগিয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করেন ডেরেক। সেই আলোচনার ক্লিপিংসও পাঠানো হয়েছে জুকারবার্গকে।

সরাসরি ফেসবুক কর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করে চিঠির শেষে ডেরেক লিখেছেন, “বেশ কয়েক বছর আগে আমি ভারতে ফেসবুকের স্বচ্ছতা এবং বরিষ্ঠ কর্মীদের উপর ওঠা অভিযোগের তদন্তের বিষয়ে অনুরোধ করেছিলাম। এখন ফের সেই একই অনুরোধ করছি ভারতের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় আপনার প্ল্যটফর্মটির সদর্থক ভূমিকা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে।”

Related Articles

Back to top button
Close