fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সামাজিক দূরত্বকে থোড়াই কেয়ার! রবিবার দিনহাটার মাছ-মাংসের বাজারে উপচে পড়ল ভিড়

জেলা প্রতিনিধি, দিনহাটা: বাজারে ভিড় দেখে বোঝার উপায় নেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলছে। সংক্রমণের মধ্যেই রবিবার দিনহাটার মাছ-মাংসের বাজারে ভিড় উপচে পড়ল ক্রেতাদের। ব্যবসায়ী সংগঠনের পক্ষ থেকে নানাভাবে সচেতন করা সত্ত্বেও বাজারে ক্রেতা বিক্রেতা উভয়েরই সচেতনতা ও সামাজিক দূরত্ব নিয়েও প্রশ্ন উঠল। মাছ বাজারে নির্দিষ্ট দূরত্ব তো দূরের কথা একে অপরের সঙ্গে পাশাপাশি থেকে হুমড়ি খেয়ে পড়ে মাছ কিনতে। ক্রেতা ও বিক্রেতাদের অনেকেই কোনও রকম মাস্ক ছাড়াই ক্রয়-বিক্রয় করছেন বলে অভিযোগ। বাজারে ভিড় কমাতে পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ দাবি করেন ব্যবসায়ীরা।

পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরে আসার পর থেকেই দিনহাটা সহ গোটা কোচবিহার জেলা জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলছে। দিনহাটা পুরসভা এলাকাসহ মহকুমাতে যেভাবে করোনা ভাইরাস বেড়ে চলছে তার পরেও দিনহাটা চওড়াহাট মাছ বাজারে এভাবে ভিড় হওয়ায় নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। শুধু বাজারে ভিড়ই নয় অধিকাংশ ক্রেতা বিক্রেতা মাস্ক ছাড়াই জিনিসপত্র ক্রয় বিক্রয় করছেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের অন্যতম উপায় ঘর বন্দী রাখার পাশাপাশি জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। তার পরেও দিনহাটার বিভিন্ন বাজারে মানুষের জমায়েত হচ্ছে নিয়ম বহির্ভূতভাবে। অবিলম্বে এই ভিড় কমানো সম্ভব না হলে করোনা সংক্রমণ আরও বেড়ে যাবে বলেও মনে করছেন কেউ কেউ।

ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সম্পাদক উৎপলেন্দু রায় বলেন, ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি ক্রেতাদের মধ্যে অধিকাংশ মাস্ক ছাড়াই ঘোরাঘুরি করছেন। এদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

দিনহাটা মহকুমা ব্যবসায়ী সমতির সম্পাদক রানা গোস্বামী জানান এই রোগ প্রতিরোধে প্রশাসন যে পদক্ষেপ গ্রহণকরবে তার পাশে থেকে সহযোগিতা করবেন তারা। পাশাপাশি তিনি বলেন, সংগঠনের পক্ষ থেকে ইতিপূর্বে ব্যবসায়ীদেরকে নানাভাবে সচেতন করা হয়েছে। তার পরেও ব্যবসায়ীদের একটি অংশ নিজেরা মাস্ক ছাড়াই দোকানে যেমন বসছেন তেমনি ক্রেতারা মাস্ক না পরে এলে তাকেও জিনিসপত্র দিচ্ছেন। মাস্ক ছাড়া কোনও রকম জিনিস নয় এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ব্যবসায়ীদেরকে আবারও সচেতন করা হবে। এই রোগ এতটাই ছোঁয়াচে সচেতনতাই মূল ওষুধ।

আরও পড়ুন: শিলচর জেলার শতাব্দীর সেরা ফুটবল একাদশে দুই জোড়া বাবা-ছেলে

দিনহাটা চওড়াহাট মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মঙ্গল বিশ্বাস, সম্পাদক ফুলাল দাস জানান, ইতিমধ্যে তারা গ্রাহকদের নানা হবে সচেতন করছেন। তার পরেও কখনও-কখনও ভিড় জমে যাচ্ছে। এই রোগ প্রতিরোধে যাতে ভিড় রোধ করা সম্ভব হয় এবং গ্রাহকরা যাতে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে মাছ কেনেন তার পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ দাবি করেন।

বিষয়টি নিয়ে দিনহাটা মহকুমা পুলিশ আধিকারিক মানবেন্দ্র দাস জানান, দিনহাটা চওড়াহাট ও প্রত্যুষা বাজারে মাছ-মাংসের দোকানগুলি সহ অন্যান্য সবজির দোকানেও যাতে কোনও ভাবেই যাতে ভিড় না হয় তার জন্য ব্যবসায়ীদেরকে অবগত করা হয়েছে। সকলেই যাতে মাস্ক পরেন এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখেন সে কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close