fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বেহাল রাস্তা, ধানের চারা পুঁতে বিক্ষোভ এলাকাবাসীর

বিদ্যুৎ কান্তি বর্মন, ঘোকসাডাঙ্গা: বেহাল রাস্তা, ধানের চারা পুঁতে বিক্ষোভ দেখাল এলাকাবাসী। মাথাভাঙ্গা ২ নং ব্লকের বড় শৌলমারী অঞ্চলে অন্তর্ভুক্ত পূর্ব মুকুলডাঙ্গা গ্রামের ব্যাকারকুটি এলাকায় প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা বর্ষা এলেই প্রতি বছর জলকাদা জমে বন্ধ হয়ে যায় যাতায়াতের যোগাযোগ ব্যবস্থা। ফলে সমস্যা মুখে পড়তে হয় স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রী থেকে শুরু করে হাট বাজার যাতায়াত এর সাধারণ মানুষ সহ পথ চলতি ও বহিরাগত মানুষদেরকেও।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, একাধিকবার বড় শৌলমারী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মহাদেব বিশ্বাসকে লিখিত অভিযোগ জানিয়েও এই রাস্তার সংস্কার কোন সুরাহা মিলেনি। প্রধান নিজে এসে দেখে  আশ্বাস দিয়েছিল কিন্তু সেই আশ্বাস আশ্বাস হয়েই রয়ে গেছে। এবছর বর্ষায় পুরো পুরী বেহাল এই রাস্তার অনেক অংশে হাটু খানিক গর্ত ও জলকাদায় ভর্তি কোনো ভাবেই সাধারণ পথচলতি মানুষ রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করতে পারছে না। যার জেরে তারা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে ধানের চারা পুঁতে বিক্ষোভে সামিল হয়েছে।

এলাকাবাসী শ্যামল গোপ , মহাদেব বিশ্বাস , সহদেব বিশ্বাস, হরিদাস , প্রমুখরা জানান এমন বেহাল রাস্তা যাতায়াত বন্ধ হয়ে গিয়েছে। রাস্তা দিয়ে হেঁটে পার হওয়া মুশকিল। কোথাও বা হাটু পর্যন্ত জল কাদায় ভর্তি রাস্তা বোঝা মুশকিল। কোথায় গর্ত কোথায় কাঁদা এমত অবস্থায় আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ লিখিত অভিযোগ জানালেও আমরা কোন সুরাহা পাইনি। কারণ বশত কোন রোগী কে বাড়ি থেকে হসপিটালে বেড় করে নিয়ে আসতে হলে এই মুহূর্তে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ মিনিট সময় লেগে যেতে পারে মেইন রাস্তায় পৌঁছাতে ফলে সেই রোগীর মৃত্যু আবশ্যক। আমাদের এলাকায় ৬০টি পরিবার রয়েছে। কম করে দু হাজার লোক এই রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে এছাড়াও প্রায় ২০০থেকে ৩০০ জন স্কুল কলেজের পড়ুয়া এই রাস্তায়  চলাফেরা করে  সাধারণ মানুষের সাথে সাথে সেই ছাত্র-ছাত্রী প্রতিনিয়ত যাতায়াত সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে । অনেক জল কাদায় পড়ে যাচ্ছে ফলে তারা আর  টিউশন যেতে পারেনা ফলে সেইসব পড়ুয়াদের শিক্ষাক্ষেত্র খামতি দেখা দিচ্ছে। আমরা চাই প্রধান সাহেব দ্রুত এই কাজের সমস্যার সমাধান করুক না হলে আমরা এরপরে আরো বড় বিক্ষোভ মিছিলে শামিল হব।

এবিষয়ে বড় শৌলমারী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মহাদেব বিশ্বাস জানান, আমরা বিষয়টি দেখেছি। তবে সেখানে দুই চার গাড়ি মাল ফেলে তা কোনভাবেই মেরামত করা সম্ভব নায় ওই রাস্তার খুবই বেহাল দশা। এই রাস্তা তৈরি করতে একটি স্কিমের দরকার রয়েছে যা কন্ট্রাক্টর মারফত করতে হবে। তাই একটি  স্কিম এর মাধ্যমে সম্পূর্ণ নতুন করে রাস্তাটি বানিয়ে দেবার চেষ্টা করছি।

Related Articles

Back to top button
Close