fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণদেশপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লকডাউন ভারতের সঠিক সিদ্ধান্ত, না হলে আক্রান্তের সংখ্যা হত ১০ লক্ষ: নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছে গোটা দেশ। এক অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে এগিয়ে চলেছে সমাজ। তাও দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করে চলেছে সাধারণ মানুষ। সমাজকে সুস্থ রাখার জন্য চলেছে লকডাউন। যার প্রথম পর্ব ইতিমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে। চলছে দ্বিতীয় অধ্যায়।

এই সময় গোটা দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৬ হাজার।আর লকডাউন না হলে সেই সংখ্যা এখন অন্তত ১০ লক্ষ হত। লকডাউনের ফলে ভারত যে ভাইরাসকে যথেষ্ট নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছে, সে কথাই জানিয়ে দিলেন নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত। লকডাউন না চললে আক্রান্তের সংখ্যা মারাত্মক জায়গায় যেত।

দেশজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে যেত ৮ লক্ষ কুড়ি হাজার। সময়মতো লকডাউন জারি না হলে এতদিনে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দু’লক্ষ ছাড়িয়ে যেত। সম্প্রতি পরিসংখ্যান দিয়ে এমনটাই দাবি করেছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। এবার নতুন পরিসংখ্যান দিল নীতি আয়োগ।

অমিতাভ কান্ত জানান, লকডাউন শুরুর আগে ১৮ থেকে ২৫ মার্চ যে সংখ্যা তিনদিনে দ্বিগুণ হচ্ছিল, তা ২২ এপ্রিল ১২.৫৩ দিনে হচ্ছে। এই ছবিটাই স্পষ্ট করে দেয় যে দেশজুড়ে লকডাউন না জারি হলে অথবা মানুষ নির্দেশ অমান্য করলে ছবিটা অত্যন্ত ভয়ংকর হত। ২২ এপ্রিল সংখ্যাটা গিয়ে দাঁড়াত ১০ লক্ষ ২২ হাজারে। বৃদ্ধির হার ৪৪ গুণ বেশি হত।

নীতি আয়োগের সিইও’র বক্তব্য, ‘করোনার মতো মহামারীর সঙ্গে লড়াই করতে সরকারের সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্তটা নেওয়া জরুরি। ভারত সেটা করতে পেরেছে বলেই আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ার পরিমাণটা ৩ থেকে ১২.৫৩ দিনে নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close