fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাম মন্দিরের সঙ্গে লকডাউনের কোনো সম্পর্ক নেই, অহেতুক রাজনীতি করা হচ্ছে : ফিরহাদ হাকিম

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: ‘রাম মন্দিরের সঙ্গে লকডাউনের কোনো সম্পর্ক নেই। ‘ তোপ দাগলেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান তথা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। সোমবার চেতলায় রাখী উৎসব অনুস্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একথা বলেন ফিরহাদ। তিনি বলেন, ‘অহেতুক রাজনীতি করা হচ্ছে।’ কয়েকদিন আগেই রাজ্য বিজেপি সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ লকডাউন তোলা নিয়ে রাজ্যকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। তার প্রেক্ষিতেই এদিন পাল্টা প্রতিক্রিয়া জানালেন ফিরহাদ। অন্য দিকে রাজ্যপালের মন্তব্যেরও কড়া সমালোচনা করেন। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর রাজ্যের সমালোচনা করে বলেন, ‘রাজ্যে প্রচুর টাকার নয় ছয় হচ্চে।’

রাম মন্দির পরিপেক্ষিতে এদিন ফিরহাদ আরও বলেন, ‘কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যখন নিজে করোনা আক্রান্ত, তার সুস্থতা কামনা করে বলি সারা ভারতবর্ষের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তাই বাংলার সরকার সব সময় চাইছে সাধারণ মানুষ নিরাপদে থাকুক। তার জন্যই ৫ তারিখ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এটা নিয়ে রাজনীতি না করাই ভালো। এ প্রসঙ্গে ফিরহাদ আরও বলেন, ‘আমরা সব ধর্মকেই শ্রদ্ধা করি। সব ধর্মের ধর্মীয় আচরণকেই শ্রদ্ধা জানাই। লকডাউন মানুষের স্বার্থে। এটা কোনও রাজনৈতিক বিরোধিতা করার মঞ্চ নয়। রাজনীতি করার সময় নয়। এ সময় মানুষকে বাঁচানোর সময়। তাই এ বিষয়ে সকলের উদ্যোগী হওয়া উচিত।

রাজ্যপালের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ফিরহাদ হাকিম বললেন, ‘চরো কো আতি হে নাজার সারে জাহা চোর হে। যারা টাকা চুরি করে তারা ঐ সব সময় ভাবে সবাই টাকা চুরি করছে। কেন্দ্রের নিযুক্ত লোক রাজ্যের সিএজি সার্টিফাই করেন। রাজ্যের সমস্ত খরচ সি এ জি দেখে। তারা সব রাজ্যের হিসেব সার্টিফের রাজ্যে লকডাউনের তালিকায় বদল, জেনে নিন নতুন তারিখ গুলিফাই করে। ঠিক সেরকম আমাদের রাজ্যেও কেন্দ্রের দ্বারা হিসেব-নিকেশ হয়। সার্টিফাই ও হয়। সেখানে কখনও এডভার্স রিপোর্ট যায় নি। বিজেপির যারা এসব কথা বলেন, তারা বালখিল্য কথা বলেন। শিক্ষিত ভাালো, অর্ধশিক্ষিত ভালো নয়।’

আরও পড়ুন: ফের রাজ্যে লকডাউনের তালিকায় বদল, জেনে নিন নতুন তারিখ গুলি

পাশাপাশি এবার করোনা পরিস্থিতির মধ্যে রাখি বন্ধন উৎসব সর্তকতা অবলম্বন করেই পালিত হচ্ছে রাজ্যজুড়ে। এ প্রসঙ্গে ফিরহাদ বলেন,’ রাখি উৎসব হচ্ছে সম্প্রীতির উৎসব যে উৎসব শুরু করেছিল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। সেই সম্প্রীতির বার্তা হিসাবে আমরা প্রত্যেক বছর রাখি বন্ধন উৎসব পালন করি। এবার করোনার জন্য সবাই সবাইকে রাখি পড়াতে পারল না। সবার শুভ কামনা করে রাখির সম্বর্ধনা জানালাম, সোমবার এই ভাবেই রাখি বন্ধন উপলক্ষে রাজ্যবাসীকে শুভেচ্ছা।’

Related Articles

Back to top button
Close