fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লকডাউনের সময়কালে ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের কাছ থেকে সেশন ফি, টিউশন ফি নেওয়া হচ্ছে

সোমা কর, দিনহাটা: রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা লকডাউনের সময়কালে ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের কাছ থেকে সেশন ফি থেকে শুরু করে টিউশন ফি নেওয়া হচ্ছে। দিনহাটার একাধিক ইংরেজি মাধ্যম স্কুল কৌশলে ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকের কাছ থেকে টিউশন ও সেশন ফি নেওয়ার প্রতিবাদে আন্দলনে নেমেছে ছাত্র সংগঠন এস এফ আই ।

স্কুলগুলির নির্দেশ অনুয়ায়ী অভিভাবকরা অনেকেই সেই ফি দিতে পারলেও অধিকাংশই সেই ফি দেওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছেন। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই ঘোষণা করা হয়েছে আগামী ১০ জুন পর্যন্ত স্কুল কলেজগুলি বন্ধ থাকবে। সেইসাথে ফি নেওয়ার ক্ষেত্রে কোন চাপ সৃষ্টি করা যাবে না। অথচ এই লকডাউনের মধ্যেই দিনহাটার একাধিক বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের পক্ষ থেকে ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকদের সেশন ফি থেকে শুরু করে টিউশন ফি দেওয়ার জন্য নানাভাবে নোটিশ পাঠানো হচ্ছে। মানুষ যখন কর্মহীন হয়ে পড়েছেন এমত অবস্থায় সরকারি ভাবে যখন নানা সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হচ্ছে তখন অভিভাবকদের কথা না ভেবে দিনহাটার বেসরকারি একাধিক ইংরেজি মাধ্যম স্কুল কোনরকম আলোচনা না করে নিজেরাই এইসব ফি আদায় করে চলছে।

এরই প্রতিবাদে ইতিমধ্যে আন্দোলনে নেমেছে এস এফ আই। সংগঠনের পক্ষ থেকে মহকুমা শাসককে ডেপুটেশন দিয়ে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে।

মহকুমা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে ছাত্র সংগঠনের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিভাবকদের অনেকেই বলেন খাবার জোগাড় করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে। কঠিন এই সময় কালে কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মিলছে না সময়মতো বেতন। এই সময় স্কুলগুলির পক্ষ থেকে সেশন ফি থেকে শুরু করে টিউশন ফি সবই চাওয়া হচ্ছে। কি করে দেবেন তারা ভেবে পাচ্ছেন না।

ছাত্র সংগঠন এসএফআইয়ের পক্ষ থেকে সোমবার দিনহাটা মহকুমা শাসকের কাছে দাবি পত্র দিয়ে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানানো হয়।
সংগঠনের পক্ষ থেকে আঞ্চলিক সভাপতি অংশুমালী রায়, সম্পাদক টুটুল সরকার, শহর ইউনিট সম্পাদক আকাশ সাহা, সভাপতি সৌরভ সরকার, জেম সাহা প্রমুখরা এদিন মহাকুমা প্রশাসনের আধিকারিকের সাথে দেখা করে তার হাতে এই দাবিপত্র তুলে দেন।
এসএফআইয়ের রাজ্য কমিটির সদস্য শুভ্রালোক দাস জানান করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় লোকজনের পাশাপাশি স্কুল কলেজ গুলিও বন্ধ চলছে। সরকারিভাবে ইতিমধ্যেই ঘোষণা হয়েছে অভিভাবকদের উপরে স্কুল গুলি যাতে কোন ভাবেই চাপ সৃষ্টি না করে। তার পরেও দিনহাটার একাধিক ইংরেজি মাধ্যম স্কুল কৌশলে অভিভাবকদের কাছ থেকে সেশন ফি থেকে শুরু করে টিউশন ফি নিচ্ছে। ওই আমাদের অনেকেই তাদের কাছে এনিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন। সংগঠনের পক্ষ থেকে এদিন মহকুমা শাসকের কাছে ডেপুটেশন দিয়ে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানানো হয়। সরকারি নির্দেশিকা কে অমান্য করে বেসরকারি স্কুলগুলোর নানাভাবে অভিভাবকদের উপর দেশের কঠিন এই সময়কালে চাপ সৃষ্টি করে চলছে বলেও তাদের অভিযোগ।
দিনহাটা পুরসভার চেয়ারম্যান বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন বিষয়টি নিয়ে তিনি স্কুল গুলির কর্তৃপক্ষের সাথে ও কথা বলবেন।

বিষয়টি নিয়ে মহকুমা শাসক শেখ আনসার আহমেদ জানান ছাত্র সংগঠনের দাবি পত্র পেয়েছি। তাদের অভিযোগ নিয়ে স্কুলগুলির সাথে কথা বলা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close